| প্রচ্ছদ

বগুড়ায় কলেজ ছাত্রীর অশ্লীল ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে ভার্সিটি ছাত্র গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার
পঠিত হয়েছে ৬৯৭ বার

বগুড়ায় এক কলেজ ছাত্রীর সঙ্গে কথিত প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তার অশ্লীল ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে ইমরান শেখ ইমন (২৪) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার সকালে শহরের সাতমাথা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 
ইমন শের-ই বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ৩য় বর্ষের ছাত্র। সে নাটোর জেলার বাগাতিপাড়ার বিল গোপালহাটি গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে। তার বাবা বগুড়ায় সরকারি একটি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত। তবে তার মাসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা নাটোরেই বসবাস করে। পুলিশ জানায়, অভিযুক্ত ইমনের বিরুদ্ধে ওই কলেজ ছাত্রীর বাবা গত ১৪ জুলাই বগুড়া সদর থানায় মামলা দায়ের করেন।
পুলিশ জানায়, বগুড়ায় সরকারি একটি কলেজে উচ্চ মাধ্যমিকের এক ছাত্রীর সঙ্গে কিছুদিন আগে ইমরান শেখ ইমনের পরিচয় হয়। পরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তবে ইমনের স্বভাব-চরিত্র ভাল না হওয়ায় ওই কলেজ ছাত্রী তার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ইমন চলতি বছরের ২৫ মে ফোনে ওই কলেজ ছাত্রীকে হুমকি দেয়। এরপর ফেসবুক থেকে ওই কলেজ ছাত্রীর ছবি সংগ্রহ করে অশ্লীল আকারে তৈরি করে আবার ফেসবুক ও ম্যাসেঞ্জারে ছড়িয়ে দেয়।
ওই কলেজ ছাত্রীর বাবার অভিযোগ করেছেন, গত ৬ জুলাই তিনি বিষয়টি জানার পর খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন অশ্লীল ওই ছবিটি ভাইরাল করা হয়েছে। এরপর ওই একই দিন তার স্ত্রীর কাছে ফোন দিয়ে ইমন ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় ইমন পরবর্তীতে তার মেয়ের অশ্লীল ছবিগুলো ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়।
বগুড়া সদর থানার সাব ইন্সপেক্টর সোহেল রানা জানান, ওই ঘটনায় কলেজ ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে অভিযুক্ত ইমনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছেন। সেই মামলার সূত্র ধরে তাকে সোমবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শহরের সাতমাথা থেকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি বলেন, ‘আলামত হিসেবে ইমনের পাঠানো অশ্লীল ছবির ২৮টি স্ক্রিনশর্ট জব্দ করা হয়েছে।’

মন্তব্য