| প্রচ্ছদ

এক কন্যার দাবীদার তিন বাবা!

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩৬ বার। প্রকাশ: ২৩ জুলাই ২০১৯ ।

সদ্যজাত শিশুকে ফেলে যাওয়ার ঘটনা সমাজে মাঝেমধ্যেই ঘটে। কিন্তু সদ্যজাত শিশুর দাবী নিয়ে তিন- তিন জন বাবার হাজির হওয়ার ঘটনা বিরল। সম্প্রতি এমনই এক ঘটনা ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে।

জানা গেছে, স্বামী পরিচয় দিয়ে  স্বপ্না মিত্র নামের এক অন্তঃসত্ত্বা নারীকে শনিবার দক্ষিণ কলকাতার গাঙ্গুলিবাগানের এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করেছিলেন দীপঙ্কর পাল নামের এক ব্যক্তি।হাসপাতালের বিলেও স্বামী হিসেবে লেখা হয় দীপঙ্করের নাম। 

রবিবার অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে একটি কন্যাসন্তানের জন্ম দেন স্বপ্না। এর পরেই শুরু হয় ঝামেলা।

হোয়াটসঅ্যাপে স্বপ্নার স্ট্যাটাস আপডেট দেখে হাসপাতালে হাজির হন হর্ষ ক্ষেত্রী নামের এক ব্যক্তি। তিনি দাবী করেন, মেয়ে ও স্ত্রী তার।তিনি  হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে তার ও স্বপ্নার ম্যারেজ সার্টিফিকেটও দেখান।

এই খবর শুনে বিপাকে পড়েন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সঙ্গে সঙ্গে স্বপ্নার কেবিনে নিরাপত্তা বাড়িয়ে দেন। খবর দেওয়া হয় পুলিশে।

ঘটনার এখানেই শেষ নয়। সোমবার সন্ধ্যায় প্রদীপ রায় বলে এক ব্যক্তি এসে দাবী করেন, তিনি ওই সন্তানের বাবা।সপ্নার সঙ্গে তার সম্পর্কেরও তথ্য-প্রমাণ দেওয়ার কথাও তিনি বলেন। 

সমস্যা অন্য আকার নিচ্ছে, এটা অনুমান করে স্বপ্না মিত্র ও তার সদ্যজাত সন্তানের দেখাশোনার জন্য নিরাপত্তা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

পুলিশ জানিয়েছে, অস্ত্রোপচারের পর স্বপ্না চিকিৎসকদের নিবিড় পরিচর্যায় রয়েছে। তিনি সুস্থ হয়ে উঠলেই শিশুটির বাবা আসলে কে সেটা জানা সম্ভব হবে। সূত্র : জি নিউজ, সংবাদ প্রতিদিন 

মন্তব্য