| প্রচ্ছদ

কিবরিয়ার মৃত্যুতে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে করা রিটের শুনানি রোববার

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩০ বার

কাভার্ডভ্যান চাপায় সার্জেন্ট গোলাম কিবরিয়ার মৃত্যুতে ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে করা রিটের শুনানি আগামী রোববার হতে পারে।

বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের যুগ্ম হাইকোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার এদিন ধার্য করেছেন।

সোমবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় কিবরিয়ার বাবা ইউনুস আলী শিকদার রিটটি দায়ের করেন।

রিটকারীর আইনজীবী মোহাম্মদ ফয়েজউল্লাহ সাংবাদিকদের জানান, মঙ্গলবার রিট আবেদনটি আদালতে উপস্থাপন করা হয়। আদালত রোববার শুনানির জন্য দিন রেখেছেন।

প্রসঙ্গত, ১৫ জুলাই দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়সংলগ্ন জিরো পয়েন্ট এলাকায় নগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের সার্জেন্ট গোলাম কিবরিয়াকে একটি কাভার্ডভ্যান চাপা দেয়। এ সময় বরিশাল-পটুয়াখালী মহাসড়কে তিনি পেশাগত দায়িত্ব পালন করছিলেন।

সংকটাপন্ন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য এয়ার অ্যাম্বুলেন্সযোগে তাকে ঢাকায় আনা হয়। পরদিন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

সার্জেন্ট কিবরিয়া দীর্ঘদিন ধরে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগে কর্মরত ছিলেন। তার বাড়ি পটুয়াখালী।

পুলিশ জানিয়েছে, বেপরোয়া গতির কারণে সার্জেন্ট কিবরিয়া কাভার্ডভ্যানটি থামানোর সংকেত দেন। কিন্তু তা অমান্য করে কাভার্ডভ্যানটি দ্রুত গতিতে চালাতে থাকেন চালক। সার্জেন্ট কিবরিয়া মোটরসাইকেল নিয়ে ধাওয়া করে কাভার্ডভ্যানটির সামনে গিয়ে পথরোধ করলে সেটি তাকে চাপা দেয়।

সার্জেন্ট কিবরিয়াকে চাপা দিয়ে দ্রুত পালিয়ে গেলেও পরে ঝালকাঠির নলছিটি থেকে কাভার্ডভ্যান চালক জলিল সিকদারকে আটক করে পুলিশ।

চাপা দেওয়ার ঘটনায় আটক কাভার্ড ভ্যানের চালক মো. জলিল মিয়ার বিরুদ্ধে বেপরোয়া গতিতে যান চালানো, সংকেত অমান্য, সরকারি কাজে বাধা দেওয়া, সরকারি সম্পত্তির (মোটরসাইকেল) ক্ষতিসাধন, হত্যার উদ্দেশ্যে আক্রমণসহ সাতটি ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মন্তব্য