| প্রচ্ছদ

বগুড়ায় টিএমএসএস হাসপাতাল থেকে লাফিয়ে রোগীর আত্মহত্যা

স্টাফ রিপোর্টার
পঠিত হয়েছে ৫৪৫ বার। প্রকাশ: ২৪ জুলাই ২০১৯ ।

বগুড়ায় বেসরকারি প্রতিষ্ঠান টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১১ তলা থেকে লাফিয়ে পড়ে শফিকুল ইসলাম (৩৫) নামে এক চিকিৎসাধীন রোগী আত্মহত্যা করেছেন। তিনি সোনাতলা উপজেলার উত্তর আটকড়িয়া গ্রামের সোলায়মান আলীর ছেলে। বুধবার দুপুরে সদরের গোকুল এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে।

 
হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, শফিকুল ইসলাম মঙ্গলবার বিকালে টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১১তলায় মেডিসিন বিভাগে ভর্তি হন। তিনি মেডিসিন বিভাগের ১নং ইউনিটের ১নং বেডে চিকিৎসাধীন ছিলেন। জ্বর এবং প্রসাবের ইনফেকশন জনিত সমস্যায় তিনি ভুগছিলেন। ভর্তির পর থেকেই তার আচরণ ছিল অস্বাভাবিক ছিল এবং তার মধ্যে অস্থিরতা কাজ করছিল। 

 

শফিকুলের স্ত্রী লতা বেগম 'পুণ্ড্রকথাকে ' বলেন, ‘তার স্বামী রাজনৈতিক মামলায় বগুড়া জেলা কারাগারে বন্দী ছিলেন। মঙ্গলবার দুপুরের পর তিনি জামিনে মুক্তি পান। অসুস্থ থাকায় বাড়িতে না গিয়ে তাকে টিএমএসএস হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। বুধবার সকাল থেকে তার কাছে বারবার ফোন আসছিল। ফোন পেয়ে শফিকুল বেড থেকে উঠে বারবার বেলকুনিতে যাচ্ছিলেন। দুপুর সাড়ে ১২টার পর তিনি বেলকুনির পাশে সিঁড়ির ফাঁকা স্থান দিয়ে নীচে লাফিয়ে পড়েন।'

বগুড়া সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) রেজাউল করিম বলেন, '১১তলা ভবন থেকে শফিকুল ইসলাম লাফিয়ে নিচে পড়ে মাথা থেঁতলে যাওয়ায় ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।' 

মন্তব্য