| প্রচ্ছদ

কোহলিকে ছাড়িয়ে, ব্র্যাডম্যানের পরে স্মিথ

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ২৪ বার
যখন নিষিদ্ধ করা হয়েছিল, নামের পাশে ছিল ২৩ টেস্ট সেঞ্চুরি। ফেরার টেস্টেই স্টিভেন স্মিথ করলেন জোড়া সেঞ্চুরি। নাম লেখালেন রেকর্ড বইয়ে। ডন ব্র্যাডম্যানের অবিশ্বাস্য রেকর্ড ছুঁতে পারেননি। তবে জায়গা করে নিয়েছেন তার পরেই। ২৫ টেস্ট সেঞ্চুরিতে ইতিহাসের দ্বিতীয় দ্রুততম স্মিথ।

এবারের অ্যাশেজ শুরুর এজবাস্টন টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১৪৪ রান করেছিলেন স্মিথ। যেটি ছিল তার ২৪তম টেস্ট সেঞ্চুরি। ২৫তম সেঞ্চুরি হয়ে গেল দ্বিতীয় ইনিংসেই। আরেকটি দুর্দান্ত ইনিংস খেলে রোববার আউট হয়েছেন ১৪২ রানে।

৬৫ টেস্টেই ২৫ সেঞ্চুরি হয়ে গেল স্মিথের। ইনিংস খেলেছেন ১১৯টি। পেছনে ফেলেছেন ১২৭ ইনিংসে ২৫ সেঞ্চুরিতে এতদিন রেকর্ডের দুইয়ে থাকা বিরাট কোহলিকে।

কোহলির আগে দুইয়ে ছিলেন শচিন টেন্ডুলকার। ভারতীয় কিংবদন্তি ২৫ টেস্ট সেঞ্চুরি করেছিলেন ১৩০ ইনিংস খেলে।

ব্র্যাডম্যানের ধারেকাছে অবশ্য কেউ নেই। কখনও কাছাকাছি যেতে পারেননি কেউ। সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যান বলে স্বীকৃত ব্র্যাডম্যান ২৫ সেঞ্চুরি করেছিলেন কেবল ৬৮ ইনিংস খেলেই।

এজবাস্টনের দুই সেঞ্চুরিতে রেকর্ড বইয়ের আরেকটি পাতায়ও নাম উঠে গেছে স্মিথের। অ্যাশেজে এক টেস্টে জোড়া সেঞ্চুরি করা মাত্র পঞ্চম অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান তিনি।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে আগে এই কীর্তি ছিল ওয়ারেন বার্ডসলি, আর্থার মরিস, স্টিভ ওয়াহ ও ম্যাথু হেইডেনের।

বার্ডসলি জোড়া সেঞ্চুরি করেছিলেন ১৯০৯ সালে। শুধু অ্যাশেজে নয়, টেস্ট ইতিহাসেই জোড়া সেঞ্চুরির প্রথম কীর্তি সেটি। ভেন্যু ছিল ওভাল।

সর্বকালের সেরা ওপেনারদের একজন মরিস এক টেস্টে দুই সেঞ্চুরি করেছিলেন ১৯৪৭ সালে, অ্যাডিলেইডে।

এরপর ৫০ বছরের খরা। ১৯৯৭ অ্যাশেজে আবার অস্ট্রেলিয়ার কোনো ব্যাটসম্যান পান অ্যাশেজে জোড়া সেঞ্চুরির স্বাদ। এবার ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে এই কীর্তি গড়েন স্টিভ ওয়াহ। স্মিথের আগে সবশেষ করেছিলেন হেইডেন, ২০০২ সালে ব্রিজবেন টেস্টে।

মন্তব্য