| প্রচ্ছদ

টটেনহ্যামে যাচ্ছেন দিবালা!

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৭ বার। প্রকাশ: ০৭ অগাস্ট ২০১৯ ।

আর্জেন্টিনা স্ট্রাইকার পাউলো দিবালাকে দলে নিতে জুভেন্টাসকে ৭০ মিলিয়ন ইউরোর প্রস্তাব দিয়েছে টটেনহ্যাম। স্পার্সদের দেওয়া প্রস্তাব পছন্দ হয়েছে জুভদের। সংবাদ মাধ্যম গোল মনে করছে, এখন শুধু চুক্তির ধরণ কেমন হবে সেটাই দেখার পালা। জুভেন্টাসের মতামত নেওয়া শেষ। এখন বিষয়টি শুধু দিবালার হাতে। টটেনহ্যাম কয় বছরের চুক্তিতে দিবালাকে দলে নেবে। আর্জেন্টিনা তারকাকে কত বেতন দেবে। এসব নিয়ে দিবালার সঙ্গে সমঝোতা হলেই প্রিমিয়ার লিগে দিবালার যাত্রা শুরু হবে। 

পাউলো দিবালা যেন তার সেরা সময় হারিয়েছেন! ২০১৫ সালে জুভেন্টাসে আসেন তিনি। দুর্দান্ত পারফর্ম করেন। জুভদের শিরোপার অন্যতম কারিগর হয়ে ওঠেন। তাকে আর্জেন্টিনার পরবর্তী মেসিও বলা হতো। কিন্তু সর্বশেষ মৌসুমে তিনি মাত্র ১০ গোল করতে পারেন। তার আগের দুই মৌসুমেই তার গোল ছিল ২৬ এবং ১৯টি। রোনালদো আসায় তার পারফরম্যান্স খারাপ হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। আগে গোল দেওয়ার দায়িত্ব ছিল দিবালার। এখন রোনালদোর। পর্তুগিজ যুবরাজ রোনালদোও নাকি দিবালাকে চান না। জুভেন্টাস তাই ছেড়ে দিতে চায় তাকে।

কিন্তু তিনপক্ষ রাজি হচ্ছে না বলেই দলবদল আলোর মুখ দেখছে না। এর আগে ম্যানইউ দিবালার প্রতি আগ্রহ দেখায়। রোমেলু লুকাকুর সঙ্গে কিছু অর্থ দিয়ে দিবালাকে দলে নিতে আগ্রহ দেখান সোলসকায়ের। কিন্তু দিবালা প্রিমিয়ার লিগের অন্যতম সেরা এই দলে যাবেন না। এরপর মারিও মানজুকিচ এবং লুকাকুর অদল-বদলের আলাপ ওঠে। কিন্তু ক্রোয়েশিয়া স্ট্রাইকার মানজুকিচও ম্যানইউতে যেতে রাজি নন। টটেনহ্যামের প্রস্তাবটা বেশ ঝরঝরে। টাকা নাও দিবালাকে দাও। রাজিও হয়েছে জুভেন্টাস। আর্জেন্টাইন কোচ মৌরিসিও পচেত্তিনোর অধীনে খেলতে দিবালাও রাজি হবেন বলেই মনে করা হচ্ছে। তাছাড়া স্পার্সদের জার্সিতে নিয়মিত খেলার নিশ্চয়তাও পাবেন তিনি।

গেল দুই মৌসুমে দারুণ ফুটবল উপহার দিয়েছে টটেনহ্যাম। প্রিমিয়ার লিগে শিরোপা জয়ের লড়াই করছে। সর্বশেষ চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল খেলেছে। কিন্তু শিরোপা জিততে পারছে না স্পার্সরা। এবার তাই কিছু অর্থ খরচা করতে চায়। এরই মধ্যে দুই ফুটবলার দলে ভিড়িয়েছে তারা। কিন্তু বাজারে তা সাড়া ফেলেনি। দিবালা দলে আসলে দলটা শক্ত হবে তাদের।

এছাড়া বার্সেলোনা তারকা কুতিনহোকেও দলে নিতে আগ্রহী টটেনহ্যাম। তবে তার জন্য অপেক্ষা করছে হচ্ছে ক্রিস্টিয়ান এরিকসনের দল বদলের ওপর। চুক্তির শেষ বর্ষে আছেন এরিকসন। স্পার্সরা তাকে বেঁচে দিয়ে তাই কিছু অর্থ আয় করে নিতে চায়। ম্যানইউ এরিকসনকে দলে নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। হাতে দলবদলের সময় আছে মাত্র একদিন। দেখা যাক শেষ সময়ে কি হয়।

মন্তব্য