| প্রচ্ছদ

মাত্র ১৭ দিনের কোচ হলেন মিসবাহ-উল হক!

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৫২ বার। প্রকাশ: ১৬ অগাস্ট ২০১৯ ।

অবশেষে গুঞ্জন সত্যিতে রূপ নিল। পাকিস্তান ক্রিকেট দলের আপাতত কোচ হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন দলটির সাবেক অধিনায়ক মিসবাহ-উল হক।

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে উঠতে পারেনি '৯২-এর বিশ্বকাপজয়ী দল পাকিস্তান।

দলটির এমন পারফরম্যান্সে সমর্থকদের পাশাপাশি হতাশ হয়েছে পাক ক্রিকেট বোর্ডও। বিশেষ করে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতা না করেই হেরে যাওয়ায় দলের ক্রিকেটার, কোচ ও নির্বাচকরা তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েন। সেই ধাক্কাটা গিয়ে পড়ে কোচের ওপর।

বিশ্বকাপ মিশন শেষে দেশে ফিরে কিছু দিন বিরতির পর কোচ মিকি আর্থারকে বিদায় করে দেয়ার ঘোষণা দেয় পিসিবি।

এর পর থেকেই কে হবেন সরফরাজদের নতুন কোচ, সে আলোচনাই এখন তুঙ্গে পাক ক্রিকেট ময়দানে।

আর্থারকে বিদায় করে দিলেও এখন পর্যন্ত নতুন কোনো কোচ নিয়োগ দেয়নি পিসিবি।

এরই মধ্যে জানা যায়, পাকিস্তানের কোচ হতে ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন মিসবাহ-উল হক। আর তার সেই ইচ্ছাকে মূল্যায়ন করেছে পিসিবি।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে পিসিবি জানিয়েছে, পাকিস্তান ক্রিকেট দলের আপাতত কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন মিসবাহ-উল হক।

বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী পূর্ণাঙ্গ কোচ হিসেবে এখনও দায়িত্ব দেয়া হয়নি মিসবাহকে।

বেশ ব্যস্ত সময় অপেক্ষা করছেন পাক ক্রিকেটাররা। বেশ কয়েকটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে দলটি। এরই মধ্যে ঘরোয়া টুর্নামেন্ট কায়েদ-ই আজম ট্রফিও শুরু হবে সেপ্টেম্বরে।

সেসব ম্যাচ সামনে রেখে পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের নিয়ে ১৭ দিনের প্রাক-মৌসুম প্রস্তুতি ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হবে। আর সেটির নেতৃত্বের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে মিসবাহকে।

অর্থাৎ সরফরাজদের প্রস্তুতি ক্যাম্পে কোচ হিসেবে ১৭ দিন দায়িত্ব পালন করবেন মিসবাহ-উল হক।

পিসিবি সূত্রে জানা গেছে, ২২ আগস্ট শুরু হয়ে এই প্রস্তুতি ক্যাম্প শেষ হবে ৭ সেপ্টেম্বর। এর পর ১২ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে কায়েদ-ই আজম ট্রফি।

মিসবাহ-উল হককে এই প্রস্তুতি ক্যাম্পের কমান্ড্যান্ট হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে।

তবে পরবর্তী কোচ নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত পাকিস্তান দলের কোচ মিসবাহই থাকবেন সেটিও স্পষ্ট করেছে পিসিবি।

মন্তব্য