| প্রচ্ছদ

রবি শাস্ত্রীই ভারতের কোচ

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ২২ বার

বিরাট কোহলিদের হেড কোচ হিসেবে থেকে গেলেন রবি শাস্ত্রী। শুক্রবার সন্ধ্যায় কপিল দেবের নেতৃত্বাধীন ক্রিকেট পরামর্শক কমিটি জানিয়ে দেয়, ২০২১ সাল পর্যন্ত ভারতের হেড কোচের পদে রবি শাস্ত্রীই থাকছেন। 

ভারতের কোচ নিয়ে বাংলাদেশের মানুষের আগ্রহের কারণ হলো, বিষয়টির সঙ্গে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কোচ নিয়োগের একটা সম্পর্ক আছে। বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোচের পদের জন্য আবেদন করা মাইক হেসনও যে ছিলেন ভারতের কোচ হওয়ার দৌড়ে! 

বিসিবির পছন্দের তালিকার ওপরের দিকেই আছেন হেসন। এরই মধ্যে টেলিকনফারেন্সে বিসিবি সভাপতির কাছে ইন্টারভিউও দিয়েছেন কিউই এ কোচ। ভারতের কোচ হিসেবে রবি শাস্ত্রীর থেকে যাওয়া মানে সেখানে হেসনের চাকরি হচ্ছে না। তাই এখন বিসিবির জন্য কাজটা সহজ হবে। তাদের হাতে বিকল্প বেশি থাকছে। শাস্ত্রীর সঙ্গে লড়াইয়ে ছিলেন আরও পাঁচজন। 

শুক্রবার তাদের ইন্টারভিউর জন্য ডাকা হয়েছিল। তবে ইন্টারভিউর আগেই সরে দাঁড়ান ওয়েস্ট ইন্ডিজের ফিল সিমন্স। অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ক্রিকেটার টম মুডির সাক্ষাৎকার নেওয়া হয় স্কাইপিতে। আর মুম্বাইয়ে বিসিসিআই সদর দপ্তরে কপিল দেবদের কমিটির সামনে সশরীরে উপস্থিত ছিলেন নিউজিল্যান্ডের মাইক হেসন, ভারতের লালচান রাজপুত ও রবিন সিং। ইন্টারভিউ থেকে বের হয়ে নিজের সম্ভাবনা নিয়ে সংবাদমাধ্যমে নিউজিল্যান্ডের মাইক হেসন বলেন, 'ঠিক জানি না। বিকেলে তারা সিদ্ধান্ত নেবে। তখন আমার মতো আপনারাও জানতে পারবেন।' 

সবার প্রথমে ইন্টারভিউ দিয়েছেন সাবেক ভারতীয় অলরাউন্ডার রবিন সিং। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের সাবেক এ কোচের পর সাক্ষাৎকার দেন ভারতের ২০০৭ টি২০ বিশ্বকাপ জয়ী দলের ম্যানেজার লালচান রাজপুত। ভারতীয় সময় বিকেল সাড়ে পাঁচটার ভিডিও কলে দলের সঙ্গে ওয়েস্ট ইন্ডিজে অবস্থানরত রবি শাস্ত্রী সাক্ষাৎকার দেন। এরপরই কপিল দেবের নেতৃত্বাধীন কমিটি সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেয়। 

অবশ্য আগে থেকেই এত জনের সাক্ষাৎকারকে লোক দেখানো বলেছে ভারতীয় গণমাধ্যম। আসলে কোচ বদলাতে চাইছে না ভারতীয় বোর্ড। ফলে শাস্ত্রীর রেখে দেওয়ার ঘোষণা আসাটা কেবল সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছিল। রবি শাস্ত্রীর সঙ্গে কোচিং স্টাফের অন্যান্য সদস্যের নামও নাকি চূড়ান্ত করে ফেলা হয়েছে। বোলিং কোচ হিসেবে ভরত অরুণকেও আবার সুযোগ দেওয়া হবে। তবে ব্যাটিং কোচ ও ফিল্ডিং কোচের পদে পরিবর্তন আসতে পারে। সঞ্জয় বাঙ্গারের বদলে ব্যাটিং কোচ হিসেবে দেখা যেতে পারে সাবেক ওপেনার বিক্রম রাঠোরকে। আর ফিল্ডিং কোচ হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকার জন্টি রোডস ফেভারিট।

মন্তব্য