| প্রচ্ছদ

বিয়ের দাওয়াতে এসে হেলমেট উপহার দিয়ে গেলেন পুলিশ

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৭২ বার। প্রকাশ: ১৯ অগাস্ট ২০১৯ ।

প্রায়ই হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেল নিয়ে রাস্তায় বেরিয়ে পড়তেন এক ব্যক্তি। আর তাকে গুনতে হতো জরিমানা। একই পুলিশের কাছে কয়েকবার এ আচরণের জন্য আটক হয়েছিলেন তিনি।

এবার সেই ব্যক্তির বিয়েতে হাজির হয়ে উপহার হিসেবে হেলমেট নিয়ে গেলেন সেই পুলিশ কর্মকর্তা।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের বীরভূমে।

শুধু পাত্রকেই নয়, কনের জন্যও হেলমেট নিয়ে এসেছিলেন স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তারা।

অবশ্য হেলমেট উপহারের বিষয়টি আগে থেকে জানানো হয়েছিল পাত্রকে। বিয়েতে পুলিশ কর্মকর্তাদের নিমন্ত্রণ করেছিলেন পাত্রের বাবা।

পুলিশ জানায়, অবশ্যই আসবেন, তবে একটি শর্তজুড়ে দেন তারা। তারা জানান, বিয়ের কার্ডে ‘সেফ ড্রাইভ, সেভ লাইফ’ স্লোগান ছাপাতে হবে।

বিষয়টি খুব ভালোভাবেই মেনে নেন পাত্রের বাবা। আর সে মতোই কার্ড প্রস্তুত করে বিলি করেন।

বিয়ের আসরে সেসব পুলিশকে এমন অভিনব কাণ্ডের বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে তারা জানান, নিমন্ত্রণও রক্ষা হলো, আর সচেতনতামূলক প্রচারও হলো।

এক পুলিশ কর্মকর্তা জানান, বিয়েবাড়িতে তো আর খালি হাতে যাওয়া যায় না, তাই নবদম্পতিকে দুটি হেলমেট উপহার দিয়ে শুভকামনা জানালাম আমরা।

আর এই সচেতনতা শুধু ওই পাত্রের জন্য নয়, সবার জন্যই বলে জানান তিনি।

হেলমেটের সঙ্গে পুলিশের পক্ষ থেকে বিয়ের অনুষ্ঠানে ছবিসংবলিত একটি স্মারকও উপহার পেয়েছেন নবদম্পতি।

অভিনব উপহার পেয়ে অভিভূত নববধূ সায়ন্তী রায়।

তিনি বলেন, ‘নতুন জীবনে প্রবেশের আগে এমন উপহার পেয়ে চমৎকার অনুভূতি হয়েছে।’

পাত্র সৌম্যশংকর রায় বলেন, ‘তড়িঘড়ি করতে গিয়ে অনেক সময় হেলমেট বাড়িতে রেখেই মোটরসাইকেল নিয়ে রাস্তায় বেরিয়ে পড়েছি। ব্যবসায়িক ব্যস্ততার কারণে এমন ভুল কয়েকবার হয়েছে। এ জন্য আমি দুঃখিত। প্রতিবারই জরিমানা দিয়েছি। তবে পুলিশকর্মীদের এমন অভিনব উদ্যোগে আমার অভ্যাস বদলে যাবে তা আমি নিশ্চিত।’ সূত্র: জি নিউজ।

মন্তব্য