| প্রচ্ছদ

কলকাতার বক্স অফিসে ১০০ দিন জয়ার

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ২৯ বার

কলকাতার ইন্ডাস্ট্রিতে একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়ে যাচ্ছেন জয়া আহসান। তার সর্বশেষ রিলিজ ‘কণ্ঠ’ ১০০ দিন পেরিয়েও এখনো হলে প্রদর্শিত হচ্ছে।

বলা হচ্ছে, মারণ রোগ ক্যানসারের বিরুদ্ধে যারা লড়ছেন, তারা বাঁচার রসদ খুঁজে পেয়েছেন এই ছবি দেখে। আর দু’হাত তুলে দোয়া করেছেন। তার জোরেই ‘কণ্ঠ’ রোববার ১০০ দিনে পা রাখে।

গরমের ছুটিতে মুক্তি পেয়েছিল নন্দিতা রায়-শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের ‘কণ্ঠ’। শুরু থেকে সাধারণ মানুষের গল্প বলে এসেছেন দুই পরিচালক। সমাজের সমসাময়িক সমস্যার দিকে আঙুল তুলেছেন। কিন্তু কখনো গলায় ক্যানসারের মতো তুলনায় ভারী ও গবেষণাধর্মী বিষয় নিয়ে ছবি বানাননি। সেখানেও এবার ব্যতিক্রমী ছাপ রাখলেন তারা।

স্বরযন্ত্রে ক্যানসার হলে রোগী হারিয়ে ফেলেন আত্মবিশ্বাস, নকল ভয়েস বক্স দিয়ে অক্লান্ত পরিশ্রমের পর কীভাবে ফিরে পায় হারানো স্বর, কী অবস্থা হয় তার স্বজনদের- সবিস্তারে দেখিয়েছেন তারা।

এই ছবির মুখ্য ভূমিকায় রেডিও জকি অর্জুন মল্লিক। তার ভূমিকায় অসাধারণ অভিনয় করেছেন পরিচালক শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। তার স্ত্রীর চরিত্রে দেখা গেছে পাওলি দামকে। থেরাপিস্টের ভূমিকায় জয়া আহসান। এই চরিত্রে সমালোচকদের দারুণ প্রশংসা পেয়েছেন ঢাকার অভিনেত্রী।

সম্প্রতি জয়া অভিনীত ‘এক যে ছিল রাজা’ সুখবর পেয়েছে। সৃজিত মুখার্জির নির্মাণটি সেরা বাংলা ছবি ক্যাটাগরিতে ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছে।

কিছুদিন আগে ঋত্বিক চক্রবর্তীর বিপরীতে অতনু ঘোষের ‘বিনি সুতোয়’ এর দৃশ্যায়ন শেষ করেন জয়া। শিগগিরই একই পরিচালকের পরের সিনেমায় প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের বিপরীতে অভিনয় করতে যাচ্ছেন।

মন্তব্য