| প্রচ্ছদ

নিখোঁজের তিনদিন পর নার্সের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৫ বার

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে নিখোঁজের তিনদিন পর বিলকিস আক্তার (৩২) নামে এক নার্সের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের কাঞ্চনপুর বাঁশের সাঁকো সংলগ্ন এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। তিনি গত শনিবার থেকে নিখোঁজ ছিলেন।

বিলকিস কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়া এলাকার মাছ ব্যবসায়ী রবিউল ইসলামের স্ত্রী। তিনি শহরের হাসপাতাল মোড় এলাকায় ডক্টরস ল্যাব অ্যান্ড প্রাইভেট হাসপাতালের নার্স হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

পুলিশের ধারণা, পরকীয়ার জেরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। তবে এ ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার বা আটক করতে পারেনি তারা।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম জানান, সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের কাঞ্চনপুর বাঁশের সাঁকো সংলগ্ন এলাকা থেকে অজ্ঞাতপরিচয় এক নারীর বস্তাবন্দি লাশ দেখে স্থানীয়রা থানায় জানান। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে সেখান থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। পরে খবর পেয়ে স্বামী রবিউল হাসপাতালে এসে লাশ শনাক্ত করেন।

ওসি আরও জানান, কেউ যাতে ওই নারীকে শনাক্ত করতে না পারে সেজন্য দুর্বৃত্তরা বিলকিসের মুখ ঝলসে দেওয়ার চেষ্টা করে। ওই নারীকে পাশবিক নির্যাতনের পর হত্যা করা হয়েছে কি-না পুলিশ বিষয়টি সম্বন্ধে এখনও নিশ্চিত হতে পারেনি। তাকে কীভাবে হত্যা করা হয়েছে, তা এ মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না।

বিলকিসের স্বামী রবিউল ইসলাম জানান, গত শনিবার দুপুর ২টার দিকে হাসপাতালের ডিউটি শেষ করে বাড়িতে ফিরে আসে সে। হঠাৎ মোবাইলে একটি ফোন আসার পর বিকেল ৫টার দিকে কাউকে কিছু না জানিয়ে হন্তদন্ত হয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। এরপর থেকে সে নিখোঁজ ছিল। পরদিন পরিবারের পক্ষ থেকে কুষ্টিয়া মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়।

 

মন্তব্য