| প্রচ্ছদ

পরিবার সঙ্গে না রাখা ডিসিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৭৫৫ বার। প্রকাশ: ৩০ অগাস্ট ২০১৯ ।

পরিবার সঙ্গে না রাখা ডিসিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

তিনি বলেন, যে সব জেলা প্রশাসকের (ডিসি) সঙ্গে কর্মক্ষেত্রে স্ত্রী বা স্বামী ও সন্তানরা থাকেন না তাদের বিরুদ্ধে সরকার ব্যবস্থা নেবে। এমন ডিসিদের তালিকা করার একটি পদক্ষেপ চলছে।’ খবর ইউএনবির

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ব্র্যাক ইন মিলনায়তনে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘বাংলাদেশে সামাজিক জবাবদিহি ও ইচ্ছামূলক গণতন্ত্রের পরিস্থিতি: বর্তমান গতিপ্রকৃতি ও ভবিষ্যৎ পথরেখা’ শীর্ষক সমীক্ষা প্রতিবেদনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ সব কথা বলেন।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, এটা দেখা গেছে যে সব জেলায় ডিসিদের সন্তানরা পড়াশোনা করে না সেখানকার স্কুল, কলেজ ও অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গুণ ও মান তদারকি ও যথাযথভাবে পরিচালনা করা হয় না। তাই জেলা প্রশাসকদের সঙ্গে যাতে পরিবার থাকে তা সরকার নিশ্চিত করতে চায় বলে জানান মন্ত্রী।

স্থানীয় সরকারকে শক্তিশালী হতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, স্থানীয় সরকারকে শক্তিশালী হতে হবে। কারণ সেখানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে ১২৩ ধরনের সেবা মানুষকে দেয়া হয়। এ ছাড়া যে সব পৌরসভার কর্মীরা বেতন পাচ্ছেন না সেগুলোর মেয়রদের বিদেশ সফরে যেতে দেবে না মন্ত্রণালয় ।

এ সময় রাশেদা কে চৌধুরী বলেন, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা সরকারের প্রতিদ্বন্দ্বী নয় এবং সরকারের উচিত বাংলাদেশের কল্যাণে তাদের সঙ্গে কাজ করা।

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্র্যাক ইন্সটিটিউট গভর্নেন্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (বিআইজিডি) আয়োজিত অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ও ক্যাম্পেইন ফর পপুলার অ্যাডুকেশনের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে চৌধুরী, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম, দ্য হাঙ্গার প্রজেক্ট বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ড.বদিউল আলম মজুমদার, ডিএফআইডি বাংলাদেশের আনোয়ারুল হক প্রমুখ।

বিআইজিডির নির্বাহী পরিচালক ড.ইমরান মতিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সমীক্ষা প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন বিআইজিডির সিনিয়র রিসার্চ ফেলো ড. মির্জা এম হাসান।

মন্তব্য