| প্রচ্ছদ

এরশাদের কবরে গিয়ে অঝোরে কাঁদলেন রওশন

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ২৪ বার

স্বামীর কবরের পাশে গিয়ে অঝোরে কাঁদলেন রওশন এরশাদ। স্বামীর আত্মার শান্তি কামনা ও শ্রদ্ধা নিবেদনসহ করলেন ফাতেহা পাঠ। অশ্রুসিক্ত নয়নে এরশাদের কবরে হাত রেখে বললেন, 'তুমি আমাকে ছেড়ে চলে গেছ, আমি এখন কী নিয়ে থাকব। দোয়া করো তোমার ছেলে (সাদ এরশাদ) যেন তোমার মতো আদর্শ মানুষ হতে পারে।' 

এ সময় সঙ্গে থাকা ছেলে রাহগির আল মাহির সাদ এরশাদ ও দলের মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গাঁকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙে পড়েন রওশন। খবর সমকাল অনলাইন।

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুর পর স্ত্রী রওশন রংপুরে না আসায় ক্ষুব্ধ ছিলেন এরশাদভক্তরা। তবে শেষ পর্যন্ত শনিবার দুপুরে এরশাদের চেহলাম উপলক্ষে হেলিকপ্টারে রংপুরে আসেন তিনি। এরশাদের বাসভবন পল্লীনিবাসে নতুনভাবে নির্মাণ করা তৃতীয় তলার একটি কক্ষে বসেন তিনি। স্বামীর পছন্দে গড়ে তোলা কক্ষটি ঘুরেও দেখেন। 

এদিকে, এরশাদের চেহলাম ঘিরে রংপুরে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করে জাপা। নগরীসহ রংপুর সদরের বিভিন্ন স্থানে দোয়া মাহফিল, দুস্থদের জন্য খাবারের আয়োজন করা হয়। এতে রংপুর বিভাগসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা দলের নেতাকর্মী, এরশাদভক্ত-সমর্থকরা অংশ নেন। এরশাদের কবর জিয়ারত করে তার আত্মার শান্তি কামনা করেন তারা। এ সময় তাদের শ্রদ্ধাঞ্জলির ফুলে ফুলে ভরে যায় এরশাদের কবরের চারপাশ।

চেহলামের আয়োজন: রংপুর নগরীসহ সদর উপজেলার ১৮টি স্থানে এরশাদের চেহলামের অনুষ্ঠান করা হয়। সদর উপজেলার সদ্যপুস্করণী ইউনিয়নের পালিচড়া উচ্চ বিদ্যালয়, চন্দনপাট ইউনিয়নের শাহাবাজপুর উচ্চ বিদ্যালয়, মমিনপুর ইউনিয়নের মমিনপুর দাখিল মাদ্রাসা, হরিদেবপুর ইউনিয়নের পাগলাপীর উচ্চ বিদ্যালয়, খলেয়া ইউনিয়নের গঞ্জিপুর উচ্চ বিদ্যালয়, রংপুর নগরীর উত্তম উচ্চ বিদ্যালয়, খটখটিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, মহব্বত খাঁ উচ্চ বিদ্যালয়, কেরানীহাট স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বড়বাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়, লালকুঠি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ, মুলাটোল আলিয়া মাদ্রাসা, নিউ জুম্মাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রবার্টসনগঞ্জ স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মাহিগঞ্জ বালিকা বিদ্যালয় ও তালুক তামপাট উচ্চ বিদ্যালয়ে এরশাদের আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া ও অসহায়-দুস্থদের খাবার বিতরণ হয়।

উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সহযোগিতা চাইলেন জাপা মহাসচিব :একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জোটগতভাবে রংপুর-৩ সদর আসন এরশাদকে ছেড়ে দেওয়ায় উপ-নির্বাচনেও আওয়ামী লীগকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ এমপি। এরশাদের বাসভবন পল্লীনিবাসে রাঙ্গাঁ বলেন, রংপুর-৩ সদর আসনটি জাপা চেয়ারম্যান এরশাদের আসন। একাদশ সংসদ নির্বাচনে আসনটি আওয়ামী লীগ আমাদের ছেড়ে দিয়েছিল। এ নির্বাচনও জোটগতভাবে হবে এবং আওয়ামী লীগ আমাদের সহযোগিতা করবে বলে আশা করছি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন এরশাদের ছেলে সাদ, জাপা এমপি লিয়াকত হোসেন খোকা, সেলিম ওসমান, রংপুর সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, মহানগর জাপার সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াসির আহমেদ, জেলা জাপার সাধারণ সম্পাদক ফখর-উজ-জামান জাহাঙ্গীরসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

মন্তব্য