| প্রচ্ছদ

বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম পতাকা ওড়াল ইরান

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ২৩ বার

রোববার (১ সেপ্টেম্বর) শুরু হলো হিজরি ১৪৪১ সাল। আর মাত্র ৮ দিন পরেই শোকাবহ ঐতিহাসিক কারবালা দিবস।

বাংলাদেশের মতো রোববার ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানেও ১৪৪১ হিজরির মহররম মাস শুরু হয়েছে। প্রতিবারের মতো দেশটিতে বেশ ঘটা করে পালিত হয় ১০ মহররম।

মহররম মাসটি ইরানিদের কাছে সবচেয়ে বেশি শোকের। দেশটি মহররমকে শোকের মাস হিসেবে পালন করে থাকে।

মাসের প্রথম দিন থেকেই শোকের ছায়া নেমে আসে দেশজুড়ে। সরকারের পক্ষ থেকে নানা কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়।

সেই কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এবার বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম পতাকা ওড়াল ইরান। কালো ধূসর মিশ্রণে তৈরি কাপড়ের সে পতাকায় লেখা হয়েছে ‘ইয়া হুসাইন’।

তেহরান সিটি কর্পোরেশনের বরাত দিয়ে দেশটির বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম জানায়, কারবালার হৃদয়বিদারক ঘটনাকে স্মরণ করতে এ পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে। মহররম মাসজুড়েই তা শোক প্রকাশ করবে। পতাকাটি আয়তনে এক হাজার ৫৬ বর্গমিটার। এটি বিশ্বে তৃতীয় বৃহত্তম পতাকা। তবে ইরানের জন্য এটি সবচেয়ে বড় পতাকা।

মহররম মাসের প্রথম দিন থেকেই ইরানজুড়ে শোক উদযাপনে নানা ধরনের অনুষ্ঠান চলবে। বিশাল মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে ১০ মহররমে।

প্রসঙ্গত ৬১ হিজরি সনের মহররম মাসের ১০ তারিখ ফোরাত নদীর তীরে ঐতিহাসিক কারবালার প্রান্তরে শাহাদাত বরণ করেন ইসলাম ধর্মের প্রচারক বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়াসাল্লামের নাতি হজরত ইমাম হোসাইন। যিনি নবী করিম (সা.)-এর কন্যা বিবি ফাতেমা ও ইসলামের ৪র্থ খলিফা হজরত আলী (রা.)-এর পুত্র।

তাকে স্মরণ করতেই মহররমকে শোকের মাস হিসেবে পালন করে ইরান। মুসলিম বিশ্বের সব দেশেই ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে ১০ মহররম স্মরণ করা হয়।

মন্তব্য