| প্রচ্ছদ

যমজ সন্তান প্রসব, ৭৪ বছরে প্রথম মা হয়ে বিশ্বরেকর্ড এই নারীর

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ২৩১ বার। প্রকাশ: ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ।

সাতান্ন বছর ধরে নিঃসন্তান ছিলেন মাঙ্গায়াম্মা ও রাজা রাও। অবশেষে সন্তানের মুখ দেখলেন এই ভারতীয় দম্পতি। তাও একেবারে যমজ শিশুকন্যা।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, ১৯৬২ সালে বিয়ে করেছিলেন অন্ধ্রপ্রদেশের বাসিন্দা ইরামাট্টি মাঙ্গায়াম্মা ও রাজা রাও। এরপর অর্ধ শতাব্দীরও বেশি সময় ধরে তারা নিঃসন্তান। বৃহস্পতিবার যমজ সন্তানের বাবা-মা হন তারা।

সবচেয়ে বেশি বয়সে সন্তান প্রসব করে রেকর্ড গড়েন ৭৪ বছর বয়সী মাঙ্গায়াম্মা। আইভিএফের মাধ্যমে সন্তান জন্ম দেন এই কৃষক নারী।

এত দিন পর্যন্ত ভারতে সবচেয়ে বেশি বয়সে মা হয়ে রেকর্ড গড়েছিলেন পাঞ্জাবের দলজিন্দর কৌর। সেই সময় তার বয়স ছিল ৭০ বছর।

চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, ভালোভাবেই সিজার অপারেশন শেষ হয়েছিল। কিন্তু পরে মা ও শিশুদের শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখা দিলে তাদের কয়েক ঘণ্টার জন্য আইসিইউতে ভর্তি করতে হয়।

তবে মা ও শিশুরা তিনজনেই এখন সুস্থ রয়েছেন বলে জানিয়েছেন কোথাপেটের অহল্যা হাসপাতালের ডিরেক্টর ডা. উমাশংকর। 

তিনি জানান, “১০ জন চিকিৎসকদের দল ৯ মাস ধরে তাঁর স্বাস্থ্যের দিকে নজর রেখেছিলেন। নিয়মিত স্ক্যা‌ন করেই নিশ্চিত হওয়া গিয়েছিল যে কোনও জটিলতা তৈরি হয়নি।”

এ দিকে এই বিরল ঘটনার সাক্ষী থাকতে পেরে উচ্ছ্বসিত চিকিত্‍সকেরা। মা হতে পেরে অত্যন্ত খুশি বলে সাংবাদিকদের জানান মাঙ্গায়াম্মা। স্বামী রাজা রাও ও অন্যান্য আত্মীয়রা মিষ্টি বিতরণ করে মুহূর্তটি উদযাপন করেন।

চিকিৎসকেরা জানান, বয়স বেশি হলেও মা না হওয়ার কোনো কারণ ছিল না মাঙ্গায়াম্মার। তার শরীরে ডায়াবেটিস বা উচ্চ রক্তচাপজনিত কোনো রোগও ছিল না। তবে পোস্ট ডেলিভারির পর কিছু সমস্যা দেখা দিতে পারে তার শরীরে। যেমন, তিনি সন্তানদের মাতৃদুগ্ধ পান করাতে পারবেন না।

২৫ বছর আগে মাসিক বন্ধ হয়ে যাওয়ায় মাঙ্গায়াম্মার বিশ্বাস ছিল তিনি মা হতে পারবেন। আইভিএফের সাহায্যে প্রতিবেশী এক নারীকে ৫৫ বছর বয়সে মা হতে দেখে তার এই ইচ্ছা আরও জোরালো হয়ে ওঠে।

ডা. উমাশংকর বলেন, “এই বয়স্কা নারীর এমন ইচ্ছাশক্তি দেখে আমরা সকলেই তাজ্জব বনে গিয়েছিলাম। আমরা তাকে সব রকম টেস্ট করে দেখি যে, তিনি মা হওয়ার জন্য একদম উপযুক্ত।”

এই চিকিৎসক জানান, কনসিভ করার জন্য মেডিক্যালি ফিট ছিলেন এই কৃষক নারী। প্রথম সাইকেলেই তিনি কনসিভ করেছেন। চলতি বছরের জানুয়ারিতে তিনি গর্ভবতী হন।

মন্তব্য