| প্রচ্ছদ

সন্তানদের নিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা গৃহবধূর, প্রাণ গেল ২ শিশুর

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩৮ বার

পারিবারিক কলহের জেরে বিষমেশানো খাবার খেয়ে দুই সন্তানকে নিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন এক মা। এ ঘটনায় বিষক্রিয়ায় মেয়ে শাম্মী আক্তার (৬) ও ১৮ মাস বয়সি ছেলে নুরুজ্জামানের মৃত্যু হয়েছে। খবর সমকাল অনলাইন 

বৃহস্পতিবার সকালে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রুহিয়া থানার ঘনি মহেশপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। 

স্থানীয়রা জানায়, গ্রামের সেলিম উদ্দীনের স্ত্রী নুর বানু (৩৫) মেয়ে শাম্মী আক্তার ও ছেলে নুরুজ্জামানকে নিয়ে বিষমেশানো খাবার খান। বিষয়টি টের পেয়ে আশাপাশের লোকাজন তাদের উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রথমে নুরুজ্জামান ও পরে শাম্মী আক্তারে মৃত্যু হয়।

হাসপাতালের তত্তাবধায়ক চিকিৎসক প্রভাস কুমার রায় বলেন, বিষপান করা মা চিকিৎসাধীন আছেন। তবে বিষক্রিয়ায় দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

নুরবানুর স্বামী সেলিম উদ্দীন বলেন, প্রতিদিনের মতো সকালে কাজের জন্য বাড়ি থেকে বের হওয়ার পরে শুনেছি আমার স্ত্রী দুই সন্তানকে নিয়ে অত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। পরে তাদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বাড়িতে র্দীঘদিন মাঝে মধ্যে ঝগড়া লাগতো। কিন্তু হঠাৎ নুর বানু এমন কাজ করবে ভাবতে পারিনি। 

নুর বানু জানান, তার স্বামী সেলিম বোকা প্রকৃতির হওয়ায় চাচা শশুর মমতাজুলসহ অন্যরা সেলিমের পরিবারকে ভিটাছাড়া করতে দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা চালিয়ে আসছিল। এছাড়াও প্রায় সময় চাচা শ্বাশুড়ি নুরিনা ও জোসনা তাকে মারধোর করতেন। বুধবার রাতে হঠাৎ করেই শ্বাশুড়ির সঙ্গে ঝগড়া লাগে তার। তখনও চাচা শশুর ও শ্বাশুড়িরা মিলে তাকে মারপিট করতে আসেন। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় শালিস বসার কথা ছিল। বিচারে তাকে আবার নির্যাতন করা হতে পারে ভেবে সকালে তিনি দুই সন্তানের মুখে বিষ দিয়ে নিজে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। 

রুহিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার রায় বলেন, শ্বাশুড়ির সঙ্গে ঝগড়ার কারণেই দুই সন্তানের মুখে বিষ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন নুর বানু প্রাথমিকভাবে এমন ধারণা করছে পুলিশ। তদন্ত শেষে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।

মন্তব্য