| প্রচ্ছদ

রিসোর্টে আটক রেখে গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণ

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৮ বার। প্রকাশ: ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ।

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার একটি রিসোর্টে আটক রেখে এক গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় পুলিশ রিসোর্টে অভিযান চালিয়ে তিন ধর্ষককে গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- সদর উপজেলার বণিক্যপাড়া গ্রামের নুরুল ইসলাম মুনশির ছেলে মো. জয়নাল আবেদীন (৪০), একই গ্রামের মৃত আলাউদ্দিনের ছেলে মো. দিদার হোসেন (৩৩) ও এম জে রিসোর্টের কর্মচারী সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর থানার রবিউল ইসলামের ছেলে আবু হাসান লিমন (৩২)।

সিরাজদিখান উপজেলার ইছাপুরা গ্রামের এম জে রিসোর্টে বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পরদিন শুক্রবার বিকেলে সিরাজদিখান থানায় ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ অভিযোগ দায়ের করেন। এতে ওই দিন দিবাগত রাত ২ টার দিকে রিসোর্টে অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

সিরাজদিখান থানার এসআই মো. সবুর খান জানান, সদর উপজেলার এক গ্রামে ভাড়া বাসায় স্বামীর সঙ্গে বসবাস করে আসছে ২৭ বছর বয়সী গৃহবধূ। স্বামীকে বিদেশে পাঠাতে এক লাখ টাকার প্রয়োজন হলে পূর্ব পরিচয়ে সুবাদে এক ওষুধের দোকানের মালিক জয়নাল আবেদীনের শরণাপন্ন হয় ওই গৃহবধূ। এতে ব্যাংক থেকে এক লাখ টাকা ঋণ উঠিয়ে দেওয়ার কথা বলে গৃহবধূকে বৃহস্পতিবার এম জে রিসোর্ট নিয়ে যায় জয়নাল আবেদীন। এ দিন দুপুর ২ টার দিকে রিসোর্টে আটকে রেখে গৃহবধূকে জয়নাল ও তার অপর ২ সহযোগী পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরে ওই গৃহবধূ রিসোর্ট থেকে বাসায় ফিরে স্বামী ও স্বজনদের ঘটনা খুলে বলেন। পরবর্তীতে শুক্রবার সিরাজদিখান থানায় ওই গৃহবধূ লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

শনিবার সকালে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত তিন ধর্ষককে আদালতে পাঠানো হয়।

মন্তব্য