| প্রচ্ছদ

বাংলাদেশকে ৫ বিলিয়ন ডলার দিচ্ছে এডিবি

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৬ বার। প্রকাশ: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ।

এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক (এডিবি) ২০২০-২০২২ অর্থবছরে বাংলাদেশকে পাঁচ বিলিয়ন ডলারের উন্নয়ন সহায়তা দেওয়ার কথা জানিয়েছে।

 দ্রুত, অন্তর্ভুক্তিমূলক ও টেকসই প্রবৃদ্ধির জন্য এ ঋণ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে বলে শুক্রবার এক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে এডিবি।

বাসস জানায়, বাংলাদেশে এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ গত ১১ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার সংসদ কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন এবং তাকে বাংলাদেশের জন্য এডিবি’র উন্নয়ন কর্মসূচি বৃদ্ধির কথা জানান।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সাক্ষাৎকালে এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ প্রধানমন্ত্রীর কাছে ২০২০-২২ সালের জন্য এডিবির নতুন কান্ট্রি অপারেশন্স বিজনেস প্ল্যান (সিওবিপি) হস্তান্তর করেন। এতে ফার্ম প্রকল্পের জন্য প্রায় পাঁচ বিলিয়ন ডলারের বিভিন্ন কর্মসূচির কথা বলা হয়েছে।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এডিবির সহায়তা কর্মসূচিকে স্বাগত জানান এবং অবকাঠামো ও মানবসম্পদ উন্নয়ন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি গবেষণা, গ্রামীণ ও কৃষি উন্নয়ন এবং বেসরকারি সেক্টরের উন্নয়নে তার সরকারের অগ্রাধিকারের বিষয়গুলো তুলে ধরেন।

এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর বলিষ্ঠ অর্থনৈতিক কার্যক্রমের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রশংসা করে বলেন, নতুন সিওবিপি সরকারের অগ্রাধিকারের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ এবং সমৃদ্ধি অর্জনের অন্যতম পথ।

এডিবির এই সহায়তা অবকাঠামো ও সামাজিক খাতে বণ্টন করা হবে। বরাদ্দের প্রায় ৫৪ শতাংশ মানবসম্পদের আরও উন্নয়ন, পল্লী সেবা, পানি সরবরাহ ও স্যানিটেশন কার্যক্রম জোরদার, সড়ক, রেল ও বন্দর সংযোগ বৃদ্ধি, গ্রামীণ উন্নয়ন ত্বরান্বিত করা এবং বিদ্যুৎ সরবরাহের সামর্থ্য ও মান বৃদ্ধির কাজে ব্যবহৃত হবে।

বড় প্রকল্পগুলোর মধ্যে রয়েছে ঢাকা-সিলেট সড়ক, জয়দেবপুর-এলেঙ্গা-রংপুর-বুড়িমারী-বাংলাবান্ধা সড়ক, ফরিদপুর-বরিশাল সড়ক, ঢাকা-চট্টগ্রাম রেললাইনের ডুয়েলগেজকরণ, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেল লাইন, ঢাকা এমআরটি লাইন ৫ (গাবতলী-পান্থপথ-আফতাবনগর), কর্মসংস্থান প্রকল্পের জন্য দক্ষতা, কম্পিউটার অ্যান্ড সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং টার্শিয়ারী এডুকেশন প্রকল্প, ঢাকা সুয়ারেজ সিস্টেম অ্যান্ড ওয়াটার সাপ্লাই প্রকল্প এবং খুলনা সুয়ারেজ সিস্টেম ডেভেলপমেন্ট প্রকল্প।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্ট্যান্ডবাই অবস্থায় পাইপলাইনে রয়েছে আরও ৪.৯ বিলিয়ন ডলারের কতিপয় প্রকল্প সহায়তার অর্থ।

মন্তব্য