| প্রচ্ছদ

আফগান-জুজু কাটবে কি

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩১ বার। প্রকাশ: ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ।

বাঁহাতে ব্যান্ডেজ নিয়েই বোলিংয়ে নেমে পড়েন আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। শুক্রবার সকালে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের দুই নেট মিলিয়ে প্রায় ঘণ্টাখানেক বোলিং করেন। তবে বল ধরার সময় দুই হাত ব্যবহার করতে পারছিলেন না বলে অস্বস্তিটা স্পষ্টই বোঝা যাচ্ছিল। হাতের এই অবস্থা নিয়ে আজ তার মাঠে নামার সম্ভাবনা খুবই কম। ফাইনাল নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় আজকের নিয়মরক্ষার ম্যাচে তাকে নিয়ে ঝুঁকি নিতে চাইবে না টিম ম্যানেজমেন্ট। তার পরও ভীষণ মরিয়া জাতীয় দলের এই নতুন লেগি। বাঁহাতের তালুতে তিনটি সেলাইও তাকে দমিয়ে রাখতে পারছে না।

বিপ্লবের মতো বাংলাদেশ দলও ভীষণ মরিয়া হয়ে উঠেছে আফগানদের বিপক্ষে হারের বৃত্ত ভাঙতে। তাই তো নিয়মরক্ষার ম্যাচেও সর্বশক্তি নিয়ে ঝাঁপাবে তারা। আরও একটি কারণে টাইগাররা খুব করে জিততে চাইছে ম্যাচটি। এ ম্যাচটি জিততে পারলে ওই একই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ফাইনালে বাড়তি আত্মবিশ্বাস নিয়ে মাঠে নামা যাবে। আর গ্রুপ পর্বের দুই ম্যাচেই হেরে গেলে যে ফাইনালে হারার আগেই হেরে বসতে পারে টাইগাররা।

তবে এই ফরম্যাটে আফগানদের বিপক্ষে প্রথম দেখায় সহজ জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। এর পর থেকে টানা হারের মধ্যে আছে তারা। গত বছর ভারতের দেরাদুনে তিন ম্যাচের টি২০ সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল বাংলাদেশ। এরপর ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে মিরপুরে ২৫ রানের হার। আজ হারলে পরিসংখ্যানটা টানা পাঁচে গিয়ে ঠেকবে। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে এ মাসের শুরুতে টেস্টে হার এবং সেটা এই জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামেই। আজ জিততে না পারলে ফাইনালের আগে আত্মবিশ্বাসটা কোথায় গিয়ে নামবে ভাবা যায়? হারের ভয়টা তো বদ্ধমূল হয়ে তাদের ভেতরে গেঁথে বসতে পারে।

এরই মধ্যে অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের কথায় ফেভারিট ট্যাগ পেয়ে গেছে আফগানরা। মিরপুরে এ টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে হারের পর সাকিব অকপটে স্বীকার করেছিলেন যে, টি২০-তে আফগানিস্তান তাদের চেয়ে অনেক এগিয়ে। দু'দলের ক্রিকেটারদের দক্ষতা ও মানসিকতায় অনেক ফারাক। টি২০ র‌্যাংকিংয়ে যে আফগানরা বাংলাদেশের চেয়ে তিন ধাপ এগিয়ে, সেটা নাকি তাদের খেলায় প্রতিফলিত হয়েছে। সাকিবের এ ধারণা কি আজ ভুল প্রমাণ করতে পারবেন টাইগাররা?

গত ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন উইকেট নেওয়া শফিউল অবশ্য জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী, 'আমরা যদি নিজেদের ভুলগুলো শোধরাতে পারি, যে যার কাজ ঠিকমতো করতে পারি, শতভাগ দিতে পারি, তাহলে ওদের হারানো সম্ভব।' আজকের ম্যাচের জন্য তাদের পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন প্রায় দুই বছর পর টি২০ দলে ফেরা এ পেসার। আর কেন তারা এ ম্যাচটা জিততে মরিয়া সেটাও ব্যাখ্যা করেছেন শফিউল, 'কালকের (আজ) ম্যাচটা আমাদের সবার জন্য ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। আমরা ভালো খেলতে পারলে এখান থেকে সবার আত্মবিশ্বাস বাড়বে। জয়ের অভ্যাসটা আমাদের ফাইনালে ভালো খেলতে সহায়তা করবে।'

আজকের ম্যাচে বাংলাদেশ দলে একটি পরিবর্তনের সম্ভাবনা রয়েছে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৩৯ রানে জয় পাওয়া ম্যাচের একাদশ থেকে বাদ পড়তে পারেন আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। অবশ্য হাতে সেলাই থাকলেও তার খেলার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। তরুণ এ লেগি হাতে চোট পেয়েছিলেন ইমার্জিং দলের হয়ে শ্রীলংকা সফরে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ফিল্ডিং করতে গিয়ে সেই পুরনো সেলাই ছুটে গিয়েছিল। তিনি খেলতে না পারলে আজ তার জায়গায় নামতে পারেন বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম।

আর বাংলাদেশের বিপক্ষে টানা জয়ের মধ্যে থাকার পরও ম্যাচকে হালকাভাবে নিচ্ছে না আফগানিস্তান। আগামী বিশ্বকাপের জন্যই তারা প্রতিটি ম্যাচকে সমান গুরুত্ব দিয়ে খেলছেন বলেও জানান আফগান ব্যাটিং কোচ নওরোজ মঙ্গল, 'আমরা ফাইনালে পৌঁছে গেছি। তাই বলে আমরা ম্যাচকে হালকাভাবে নিচ্ছি না। আমাদের মূল লক্ষ্য আগামী বিশ্বকাপ। সে লক্ষ্যেই আমরা প্রস্তুত হচ্ছি। প্রতিদিন উন্নতি করার চেষ্টা করছি আমরা।'

বাংলাদেশকে যথেষ্ট সমীহও দেখিয়েছেন তিনি, 'বাংলাদেশ অবশ্যই ভালো দল। তাদের স্কোয়াড যথেষ্ট শক্তিশালী। তাদের বিপক্ষে অবশ্যই আমাদের সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা আছে।' ফাইনাল নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় আফগানিস্তান অবশ্য খানিকটা পরীক্ষা-নিরীক্ষার পথে হাঁটতে পারে। এই যেমন গতকাল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একাদশে তিনটি পরিবর্তন করেছে তারা। এর মধ্যে ফজল নিয়াজাইয়ের অভিষেকও হয়েছে।

মন্তব্য