| প্রচ্ছদ

আইএসের ভিডিওর সঙ্গে ফতুল্লায় পাওয়া টয়গানের অনেক মিল

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৪৫ বার। প্রকাশ: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ।

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার একটি বাসায় অভিযানের পর সেখান থেকে উদ্ধার হওয়া টয়গানের (খেলনা অস্ত্র) সঙ্গে আইএসের একটি ভিডিওর তরুণদের হাতে থাকা টয়গানের অনেকটা মিল আছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, কয়েক মাস আগে আইএস এই ভিডিও প্রকাশ করে।

সোমবার বেলা আড়াইটার কিছু আগে অভিযান শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম এসব বলেন।

তিনি বলেন, রোববার রাতে ঢাকা থেকে যন্ত্রকৌশলী জামালউদ্দিন রফিককে (২৩) গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার বক্তব্যের ভিত্তিতে নারায়ণগঞ্জের একটি বাড়ি থেকে তার বড় ভাই আহছানউল্লা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের যন্ত্রকৌশল বিভাগের শিক্ষক ফরিদউদ্দিন রুমিকে (২৭) গ্রেপ্তার করা হয়। সেখান থেকে রুমির স্ত্রী ও বাবাকে আটক করা হয়েছে। তবে তাদের সম্পৃক্ততা সম্পর্কে পুলিশ নিশ্চিত না। আর ছোট ভাই পলাতক আছেন।

মনিরুল ইসলাম জানান, সম্প্রতি ঢাকায় পুলিশের ওপর কয়েকটি হামলায় বোমার যেসব উপাদান ছিল সেসব উপাদান, টয়গান ও ভেস্ট নারায়ণগঞ্জের এই বাড়িতে পাওয়া গেছে। 

পুলিশ মনে করছে, তারা আলাদা কোনো সংগঠনের এবং অপেক্ষাকৃত শক্তিশালী। তারা হামলার পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নের সঙ্গে জড়িত। 

এক প্রশ্নের জবাবে মনিরুল ইসলাম বলেন, কয়েক মাস আগে আইএসের একটি ভিডিও প্রকাশিত হয় যেখানে কয়েকজন তরুণের হাতে টয়গান ছিল। ওই টয়গানের সঙ্গে এ বাড়িতে পাওয়া টয়গানের অনেকটা মিল রয়েছে।

পুলিশ জানায়, সোমবার পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল সেখানে চারটি বোমা নিষ্ক্রিয় করেছে। চারটিই শক্তিশালী ছিল। তার মধ্যে ফ্রিজে থাকা যে বোমা নিষ্ক্রিয় করা হয়, সেটাতে বিকট আওয়াজ হয়।

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার বাড়িতে আজ অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক ও বোমা তৈরির সামগ্রী উদ্ধারের দাবি করেছে পুলিশ।

মন্তব্য