| প্রচ্ছদ

ধুনটে মা হত্যাকারীপুত্র অস্ত্র মামলায় রিমান্ডে

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৪২ বার। প্রকাশ: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ।

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় নেশার টাকার জন্য আগুনে পুড়িয়ে মাকে হত্যাকারী ঘাতকপুত্র সোহানুর রহমান খোকন মন্ডলকে অস্ত্র মামলায় দু’দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। তবে রিমান্ডের প্রথম দিনেই পুলিশ তার কাছ থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য পেয়েছে। 

ধুনট থানা সূত্রে জানা যায়, গত ২সেপ্টেম্বর (রবিবার) বিকেল ৪টায় উপজেলার গজারিয়া গ্রামে খুকি খাতুন (৬৫) নামের এক বৃদ্ধ মাকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়। মাদকসেবনের জন্য ৫হাজার টাকা চেয়ে না পেয়ে সোহানুর রহমান খোকন মন্ডল (৩২) এ ঘটনা ঘটায়। খোকন মন্ডল ওই গ্রামের আব্দুস সামাদ মন্ডল ও খুকি খাতুনের কনিষ্ঠপুত্র। নিজের মাকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় পুলিশ সোহানুর রহমান খোকন মন্ডলকে আটক করে। আটকের পর তার বাড়ি থেকে বিভিন্ন মাদকদ্রব্য ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। পরে খোকন মন্ডলের বিরুদ্ধে ধুনট থানায় মাকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা, মাদকদ্রব্য ও অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় পৃথক তিনটি মামলা দায়ের হয়। সোহান বগুড়ার আদালতে ১৬৪ধারায় জবানবন্দিতে মাকে পুড়িয়ে হত্যার দায় স্বীকার করেছে। 

ধুনট থানার এসআই আল এমরান হোসেন জানান, রবিবার (২২ সেপ্টেম্বর) বগুড়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে অস্ত্র মামলায় সোহানুর রহমান খোকনের দুই দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়। আবেদনের শুনানী শেষে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট নিস্কৃতি হাগিদক দু’দিনের রিমান্ড আবেদন মুঞ্জুর করেন। এক প্রশ্নের জবাবে এসআই এমরান হোসেন বলেন, খোকনকে আটকের পর তার বাড়ি থেকে ২৮ইঞ্চি একটি ও ২৫ইঞ্চি একটি ছোড়া এবং একটি রামদা উদ্ধার করা হয়। এসব অস্ত্র দিয়ে সে ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিল। অস্ত্র মামলার জন্য কিছু তথ্যের প্রয়োজন হওয়ায় খোকনকে রিমান্ডে নেওয়া হয়।

ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, আগুনে পুড়িয়ে মাকে হত্যাকারী সোহানুর রহমান খোকনকে অস্ত্র মামলায় দু’দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। রবিবার রিমান্ডের প্রথম দিনেই পুলিশকে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়েছে খোকন। এ কারনে ১দিনের রিমান্ড শেষে তাকে জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, রিমান্ডে পুলিশ প্রয়োজনীয় সকল তথ্য পেয়েছে। কিন্তু মামলার তদন্তের স্বার্থে তথ্যগুলো প্রকাশ করা হচ্ছে না।
 

মন্তব্য