| প্রচ্ছদ

বগুড়ার ধুনটে পরকিয়ার প্রতিবাদ করায় স্ত্রীকে নির্যাতন

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৪৩ বার। প্রকাশ: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ।

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় পরকিয়ার প্রতিবাদ করায় শান্তনা খাতুন নামের এক গৃহবধু স্বামীর নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। এই ঘটনায় বুধবার ধুনট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ধুনট সদর ইউনিয়নের বথুয়াবাড়ি গ্রামের মন্তাজ ফকিরের মেয়ে শান্তনা খাতুনের সাথে প্রায় ৩ বছর আগে মাঠপাড়া গ্রামের আমির পন্ডিতের ছেলে গোলাম রব্বানী কালু’র বিবাহ হয়। কিন্তু বিয়ের পর অন্য নারীর সঙ্গে স্বামী গোলাম রব্বানীর পরকিয়ার বিষয়টি জানতে পারেন শান্তনা খাতুন। বিষয়টি নিয়ে তাদের দু’জনের মধ্যে প্রায়ই কলহ সৃষ্টি হতো।

সম্প্রতি স্ত্রী ও সংসারের প্রতি অন্যমনস্ক হওয়ায় শান্তনা খাতুন স্বামীর পরকিয়ার প্রতিবাদ করতে থাকেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে যায় গোলাম রব্বানী। এক পর্যায়ে সে গত শনিবার দুপুর ২টায় শান্তনা খাতুনকে ঘরের মধ্যে আটকে রেখে বেধরক মারপিট করে। খবর পেয়ে শান্তনা খাতুনের বাবার বাড়ির সদস্যরা এসে স্বামীর বাড়ি থেকে শান্তনা খাতুনকে উদ্ধার করেন। পরে তাকে চিকিৎসার জন্য ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এই ঘটনায় গোলাম রব্বানী কালুর বিরুদ্ধে শান্তনা খাতুনের ভাই শরিফ উদ্দিন ধুনট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। 

নির্যাতিত গৃহবধু শান্তনা খাতুন বলেন, 'পরকিয়ার কারনে আমার স্বামীর সংসারের প্রতি আকর্ষন ছিলো না। বিষয় গুলো জানতে পারার পর থেকেই প্রতিবাদ করছিলাম। প্রতিবাদ করতে গেলেই আমাকে মারধর করে। তবুও নিরবে সহ্য করে সংসার করছিলাম। কিন্তু এবার অমানুসিক নির্যাতন করেছে।'  

ধুনট থানার ওসি ইসমাইল হোসেন বলেন, 'শান্তনা খাতুন নামের গৃহবধুকে নির্যাতনের ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ওই গৃহবধুর চিকিৎসার খবর নিয়েছি। তাদের অভিযোগটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।'

মন্তব্য