| প্রচ্ছদ

বগুড়ার শেরপুরে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে দপ্তরি আটক

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ২৩০ বার। প্রকাশ: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ।

বগুড়ার শেরপুরে মামুরশাহী দাখিল মাদ্রাসার ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে এক দপ্তরিকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার শাহবন্দেগী ইউনিয়নের সাধুবাড়ী পাকারমাথা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। ওই দপ্তরির নাম আবু সাঈদ (৪৫)। তিনি উপজেলার একই ইউনিয়নের মামুরশাহী গ্রামের লোকমান হোসেনের ছেলে।

এই ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই মাদ্রাসা ছাত্রীর বাবা উপজেলার ঘোলাগাড়ী গ্রামের বাসিন্দা নুরুল আলম বাদি হয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগে জানা যায়, প্রতিদিনের মতোই ষষ্ঠ শ্রেণীর ওই ছাত্রী মাদ্রাসায় যায়। একপর্যায়ে দুপুরের দিকে মাদ্রাসায় খাবার বিরতির সময় ছাত্রী বিশ্রামাগারে ওই ছাত্রীকে একা পেয়ে জড়িয়ে ধরে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা চালায় দপ্তরি আবু সাঈদ। এসময় ওই ছাত্রীর চিৎকারে প্রতিষ্ঠান প্রধানসহ অন্যান্যরা এগিয়ে এলে কৌশলে সে পালিয়ে যায়। এরপর সন্ধ্যার দিকে স্থানীয় সাধুবাড়ী পাকার মাথা এলাকায় দপ্তরি আবু সাঈদকে আটক করে বিক্ষুব্ধ জনতা। পরে তাকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আমিনুল ইসলামের বক্তব্য জানতে তার সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

তবে ওই মাদ্রাসার সভাপতি শাহাদৎ হোসেন বলেন, 'ঘটনাটি জানার পর ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর বাবাকে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

শেরপুর থানার ওসি হুমায়ুন কবির বলেন, 'অভিযোগটি তদন্তপূর্বক আইন আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।' 

মন্তব্য