| প্রচ্ছদ

ডাকাতের ছুরিকাঘাতে ভাতিজা নিহতের খবরে মারা গেলেন ফুপু

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩১ বার। প্রকাশ: ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ।

ঢাকার ধামরাইয়ে ডাকতের ছুরিকাঘাতে রমজান আলী রঞ্জন (২১) নামে এক কলেজছাত্র নিহত হয়েছেন। এই ঘটনার খবর পেয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তার ফুপুও। তার নাম রাবেয়া বেগম (৪৫)। শুক্রবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার বাগবাড়ি জালসা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এসময় ডাকাতের হামলায় আহত হন গৃহকর্তাসহ তিনজন। খবর যুগান্তর অনলাইন 

নিহত কলেজছাত্র রমজান আলী রঞ্জন একই এলাকার আবু সায়েদ মিয়ার ছেলে ও ফুপু রাবেয়া বেগম উপজেলার কাওয়ালীপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।

এলাকাবাসী জানান, রাত ১২টার দিকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে বাগবাড়ি জালসা গ্রামের আবু সায়েদের বাড়িতে ৭-৮ সদস্যের সশস্ত্র এক ডাকাতদল হানা দেয়।

এসময় গৃহকর্তা আবু সায়েদ মিয়া তার ছেলে কলেজছাত্র রমজান আরী রঞ্জন ও মেয়ে শারমিন আক্তার ঘর থেকে বের হলে ডাকাতরা নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে ঘরের ভেতর তল্লাশি শুরু করে।

এরপর তারা ঘরের সিন্দুক ও আলমারির তালা ভেঙে নগদ অর্থ ও স্বর্ণালংকার লুট করতে থাকে। এসময় রমজান আলী রঞ্জন ও তার বাবা আবু সায়েদ তাদের লুটপাটে বাঁধা দিলে ডাকাতরা পেছন থেকে ওই কলেজছাত্রকে ছুরিকাঘাত করে। প্রচণ্ড রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়।

এসময় ডাকাতরা বাড়ির অন্য সদস্যদের মারধর করে গুরুতর আহত করে পালিয়ে যায়।

এদিকে ডাকাতের হামলায় রমজান আলী রঞ্জন নিহতের খবরে ফুফু রাবেয়া বেগমও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন।

এ ব্যাপারে ধামরাই থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা জানান, ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক ও বেদনার। নিহত ছাত্রের মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি এবং ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

মন্তব্য