| প্রচ্ছদ

মদ খেয়ে সৈকতে পর্যটকদের গালাগাল, যুবলীগ নেতা আটক

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩৫ বার। প্রকাশ: ০১ অক্টোবর ২০১৯ ।

কুয়াকাটায় মদ খেয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করায় পৌর যুবলীগের সভাপতি প্রার্থীসহ ৫জনকে আটক করেছে পুলিশ। গত সোমবার রাতে কুয়াকাটার সি বিচ থেকে ৩জন ও মহিপুর থেকে ২জনকে আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- মহিপুর থানা যুবলীগের সদস্য ও কুয়াকাটা পৌর যুবলীগের সভাপতি প্রার্থী বশির হাওলাদার (৩৫), তার সহযোগী সজল বাদশা (৩২), টিয়াখালী এলাকার নেছার উদ্দিন (২৮), মহিপুর এলাকার ফয়সাল (২৮) ও বাপ্পি খলিফা (২৫)।

পুলিশ জানায়, সি-বিচে আটক বশির হাওলাদারসহ তার দুই সহযোগী কুয়াকাটার জিরো পয়েন্টের পূর্ব পাশের বেঞ্চে বসে প্রকাশ্যে মদ পান করেন। এরপর সেখানে আগত পর্যটকদের উদ্দেশ্যে গালাগাল ও বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টির অভিযোগে ট্যুরিস্ট পুলিশের দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা তাদের আটক করে। পরে তাদের মহিপুর থানার এসআই তারেকের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এদিকে মহিপুর থানা পুলিশের বিশেষ অভিযান পরিচালনাকালে ফয়সাল ও বাপ্পি খলিফা নামের দুই যুবককে মহিপুর থেকে আড়াই লিটার মদসহ আটক করা হয়।

স্থানীয়রা জানায়, বশির মহিপুর থানা যুবলীগের নেতা বলে নিজেকে পরিচয় দিতো। তিনি বর্তমানে মহিপুর থানা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য পরিচয়ে এলাকায় ব্যাপক ব্যানার ফেস্টুন টানিয়েছে। তবে তার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িতের অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা।

মহিপুর থানা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মাসুদ জানান, বিএনপির আমলে বিএনপি নেতাদের সাথে বশির হাওলাদারের বেশ সখ্যতা ছিল। তিনি যুবলীগে অনুপ্রবেশকারী। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহেল আহমেদ জানান, আটকদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মন্তব্য