| প্রচ্ছদ

অ্যাসিড হামলার ভয়ঙ্কর স্মৃতি নিয়ে লিখলেন কঙ্গনার দিদি রঙ্গোলি

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৩৫ বার। প্রকাশ: ০৩ অক্টোবর ২০১৯ ।

কলেজের বার্ষিক উৎসব চলছিল। সবাই ব্যস্ত ছিলেন নিজেদের মধ্যে। ঠিক এমন সময়েই অচেনা এক যুবক অ্যাসিড ছুঁড়ে মারে কঙ্গনা রানাউতের দিদি রঙ্গোলি চান্ডেলের মুখে। মুহূর্তেই সারা শরীরে অসহ্য জ্বালা। শুধু তাই নয়, কঙ্গনাকেও করা হয় শারীরিক নির্যাতন। সম্প্রতি নিজের উপর হওয়া অ্যাসিড হামলা নিয়ে টুইটারে লিখেছেব রঙ্গোলি চান্ডেল।

টুইটারে রঙ্গোলি লেখেন, ‘ছেলেটি আমায় প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিল। আমি রিজেক্ট করি। এর পরেই এমন কাণ্ড ঘটায় সে।’ সে দিনের সেই ভয়ঙ্কর স্মৃতির কথা স্মরণ করে তিনি আরও লেখেন, ‘আমার বন্ধু (বর্তমানে স্বামী) হাসপাতালে নিয়ে যায়। দিনের পর দিন হাসপাতালের সামনে আমার পরিবার, বন্ধুবান্ধব বসে থেকেছে। আমার বোন কঙ্গনা, যাকে নাকি সেদিন প্রায় আধমরা করে ফেলেছিল সেই সব লোকগুলো, সেও দিনের পর দিন আমায় সাহস জুগিয়েছে, পাশে থেকেছে।’

টুইটার পোস্টে রঙ্গোলি জানান, একটা সময় ভেবেছিলেন পারবোনা, হেরে যাবো। সে সময়টায় ঢাল হয়ে তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছিল তাঁর পরিবার।

অ্যাসিড হামলা হওয়ার ঠিক আগের মুহূর্তের একটি ছবিও শেয়ার করেছেন তিনি। রঙ্গোলি দেরহাদূনের ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে পড়তেন। কিন্তু ওই অ্যাসিড হামলায় হারিয়ে ফেলেছেন অনেক কিছুই। টপার হওয়া সত্ত্বেও কলেজ যেতে পারেননি। হাসপাতালেই কেটেছিল বেশ কয়েক বছর। সারা শরীরে ৫৪টা অস্ত্রোপচার করতে হয়েছিল। সারাজীবনের জন্য নষ্ট হয়ে যায় তাঁর বাঁ কান। তবুও হার মানেননি তিনি। ঘুরে দাঁড়িয়েছেন আবার। দেশে যাতে আইন করে অ্যাসিড কেনাবেচা বন্ধ হয় তা নিয়েও বার বার সরব হয়েছেন রঙ্গোলি। সুত্র-আনন্দবাজার পত্রিকা। 

মন্তব্য