| প্রচ্ছদ

বিকিনি মডেলকে ১৩৫ কোটি টাকা উপহার দিয়ে বিপাকে লেবাননের প্রধানমন্ত্রী

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ৫১ বার। প্রকাশ: ০৪ অক্টোবর ২০১৯ ।

দক্ষিণ আফ্রিকার এক বিকিনি মডেলকে বিপুল পরিমাণ টাকা উপহার দেওয়ার খবরে সমালোচনার মুখে পড়েছেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরি।

নিউইয়র্ক টাইমসের বরাত দিয়ে ডয়চে ভেলে বাংলা জানায়, এই উপহারের পরিমাণ ১৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় যা ১৩৪ কোটি ৮২ লাখেরও বেশি টাকা) বলে জানা গেছে।

দক্ষিণ আফ্রিকার একটি আদালত থেকে পাওয়া নথি বিশ্লেষণ করে ঘটনা সম্পর্কে জানা যায়। 

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৩ সালে সিচেলিস দ্বীপে দক্ষিণ আফ্রিকার মডেল ক্যানডাইস ভ্যান ডার মারউইর সঙ্গে দেখা করেন হারিরি৷ ওই সময় তিনি এই মডেলকে ব্যক্তিগতভাবে ১৬ মিলিয়ন ডলার দেন।

এখনো জানা যায়নি কেন হারিরি ওই মডেলকে এই অর্থ দিয়েছিলেন৷ তবে ভ্যান ডার মারউইর আয়কর কর্তৃপক্ষকে বলেছিলেন, তাকে ওই অর্থের কর দিতে হবে না, কারণ তিনি তা উপহার হিসেবে পেয়েছেন।

দুই দফায়  বিকিনি মডেলকে এই অর্থ দেন লেবাননের দুই মেয়াদের প্রধানমন্ত্রী হারিরি। এর মধ্যে প্রথমবার ক্যানডাইসের অ্যাকাউন্টে অর্থ স্থানান্তর হয় ২০১৩ সালে, সে সময় তিনি লেবাননের সরকারে ছিলেন না।

বিকিনি মডেলকে নগদ অর্থ পাঠানো বেআইনি না হলেও এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে৷ কেউ কেউ হতবাক হয়েছেন, একজন ব্যবসায়ী ও মিডিয়া মুঘল তার ব্যবসায় ধস চলার সময়েও কীভাবে বিপুল পরিমাণ অর্থ একজনকে উপহার হিসেবে দিয়েছেন। কেউবা এতদিন পরে ওই প্রতিবেদন করা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন।

ফোর্বস ম্যাগাজিন বলছে, গত বছর হারিরির সম্পদের পরিমাণ ছিল ১ দশমিক ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার৷ কিন্তু বর্তমানে অর্থনৈতিকভাবে কঠিন সময় পার করছে লেবানন, যার প্রভাব পড়েছে হারিরির ব্যবসা-বাণিজ্য ও রাজনৈতিক সাম্রাজ্যেও।

কর্মচারীদের বেতন দিতে না পারায় ইতোমধ্যে হারিরির পারিবারিক নির্মাণ প্রতিষ্ঠান সৌদি ওগারের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে এবং তার টিভি নেটওয়ার্কও গত সেপ্টেম্বর থেকে সাময়িকভাবে বন্ধ রয়েছে।

মন্তব্য