| প্রচ্ছদ

শেরপুরে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে ভবন হস্তান্তর অনুষ্ঠান

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি
পঠিত হয়েছে ৫৩ বার। প্রকাশ: ০৪ অক্টোবর ২০১৯ ।

দেশের সব ক্লাবগুলো ক্যাসিনোতে পরিনত হয়েছে। এসব আসরে গিয়ে অনেকেই সর্বশান্ত হয়েছেন। তাই এসব জুয়ার আসরগুলোর বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে সরকার। এ অবস্থায় জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযোদ্ধাদের কমপ্লেক্সে ব্যবহার করে যেন কোন চক্র অপকর্ম চালাতে না পারে সেজন্য সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। বিকেলে বগুড়ার শেরপুর উপজেলার নবনির্মিত মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে ভবন হস্তান্তর উপলক্ষে আলোচনাসভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বগুড়া-৫ (শেরপুর-ধুনট) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা হাবিবর রহমান এসব কথা বলেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলী সেখের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি এমপি হাবিবর রহমান আরও বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়ে দেশ স্বাধীন করেছি। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল ক্ষুধা, দারিদ্রমুক্ত দেশ গড়ে তোলা। অসহায় মানুষের মুখে হাসি ফুটানো। বর্তমান সরকার সেলক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছে। তাই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আগামি প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার আহবান জানান তিনি। অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মজিবর রহমান মজনু।


মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ খানের সঞ্চালনায় সভায় দৈনিক ইত্তেফাকের সাবেক চীপ রির্পোটার প্রবীণ সাংবাদিক আকরাম হোসেন খান, শেরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হুমায়ুন কবির, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবীব আম্বীয়া, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ¦ শাহজামাল সিরাজী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খাদিজা বেগম, আ.লীগ নেতা মকবুল হোসেন, বদরুল ইসলাম পোদ্দার ববি, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার কেএম ওবায়দুর রহমান, প্রাণী সম্পদ দফতরের ভেটেরিনারী সার্জন ডা. মো. রায়হান, পিএস কোরবান আলী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

পরে বিশেষ মিলাদ ও দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আইয়ুব আলী। উক্ত অনুষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সদস্যরা ছাড়াও উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্য, সাংবাদিক, ব্যবসায়ীসহ নানা শ্রেণীপেশার মানুষ অংশ নেন।
 

মন্তব্য