| প্রচ্ছদ

অবৈধ চুক্তির হেডলাইন ঢাকতেই ক্যাসিনো নাটক সামনে: মির্জা আব্বাস

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ১৬ বার। প্রকাশ: ০৬ অক্টোবর ২০১৯ ।

ভারতের সঙ্গে অবৈধ চুক্তির হেডলাইন ঢাকতে পুরোনো ক্যাসিনো নাটক সামনে আনা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস।

মির্জা আব্বাস বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে দেশের স্বার্থ রক্ষা হয়নি। ভারতের অনেক পাওয়ার বিপরীতে বাংলাদেশের ১৭ কোটি মানুষের জন্য এসেছে মাত্র একটি ঠাকুর শান্তি পুরস্কার।

রবিবার এক ফেসবুক পোস্টে তিনি এসব মন্তব্য করেন।

মির্জা আব্বাস ফেসবুক পোস্টে লেখেন, ‘দুতরফা বৈঠকে একতরফা চুক্তি, তরল গ্যাস, চট্টগ্রামমোংলা বন্দর, ফেনী নদীর পানিও যাবে ভারতের ত্রিপুরার সাবরুম শহরে। কথা ছিল মৃতপ্রায় তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা নিয়ে আসবেন, উল্টো পানি দিয়ে আসলেন। শুধু কি পানি? তরল গ্যাস, একাধারে চট্টগ্রাম আর মোংলা সমুদ্রবন্দর, গভীর সমুদ্রের গ্যাস ব্লক, করিডরসহ অজানা আরও অনেক অনেক কিছু। বিনিময়ে এ দেশের ১৭ কোটি মানুষ কি পেলাম আমরা? ১৭ কোটি মানুষের জন্য একটি মাত্র ঠাকুর পুরস্কার।’

প্রসঙ্গত, শনিবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে সাতটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হয়। তিনটি যৌথ প্রকল্প উদ্বোধন করেন দই দেশের প্রধানমন্ত্রী। ওই সব চুক্তি ভারতের পক্ষে গেছে বলে দাবি করেছেন বিএনপি নেতা মির্জা আব্বাস।

এছাড়া যুবলীগ নেতা ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটকে গ্রেপ্তার নিয়ে প্রশ্নও তুলেছেন বিএনপিরও এ নেতা। তিনি বলেন, ‘ক্যাসিনোর পুরোনো নাটক আজকেই সামনে আনলেন? অবৈধ চুক্তির হেডলাইন ঢাকতে মিডিয়াকে দিলেন নতুন হেডলাইন? জনগণ এখন সব বোঝে। আজকের হেড লাইন হবে- দেশবিরোধী চুক্তি ঢাকতে পুরোনো ক্যাসিনো নাটকের নতুন সংস্করণ।’

তিনি দাবি করেন, ‘বাংলাদেশের অনুমতি ছাড়াই ফেনী নদী থেকে অবৈধভাবে বছরের পর বছর পানি উত্তোলন করে নিয়ে যাচ্ছিল ভারত। আন্তর্জাতিক আইন অমান্য করে সীমান্তের জিরো লাইনে পাম্প বসিয়ে নদী থেকে পানি উত্তোলন করে চলেছে নয়া দিল্লি। পানি উত্তোলন না করতে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে অনুরোধ জানালেও পাত্তাই দেয়নি ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। এবারের সফরে সেই অবৈধতার পাকা পোক্ত বৈধতা দিয়ে এলেন আমাদের সরকার।’

 

মন্তব্য