| প্রচ্ছদ

এটা পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড: আবরারের বাবা

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ২৮ বার। প্রকাশ: ০৮ অক্টোবর ২০১৯ ।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের বাবা বরকত উল্লাহ্ বলেছেন, আবরারকে পরিকল্পিতভাবে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আমার ছেলেকে ১/২ দু’জন হত্যা করেনি, ১৫ জন মিলে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। আমি সবার ফাঁসি চাই।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টায় কুষ্টিয়া শহরের পিটিআই রোডস্থ আল-হেরা জামে মসজিদে আবরারের দ্বিতীয় জানাজা শেষে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, ছয় ঘণ্টা ধরে নির্যাতন চালিয়ে আমার ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে। দ্রুততম সময়ে ছেলে হত্যার বিচার চাই। 

এর আগে ঢাকা থেকে মরদেহবাহী গাড়িতে করে আবরার ফাহাদের মরদেহ তার নিজ গ্রাম কুষ্টিয়ার কয়া ইউনিয়নের রায়ডাঙ্গায় আনা হয়।

সোমবার রাত পৌনে ১০টার দিকে বুয়েটের কেন্দ্রীয় মসজিদের সামনে আবরার ফাহাদের প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে মরদেহবাহী গাড়িতে করে আবরার ফাহাদের মরদেহ তার নিজ গ্রাম কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউনিয়নের রায়ডাঙ্গায় আনা হয়। খবর সমকাল অনলাইন 

রোববার রাত ৩টার দিকে বুয়েটের শেরেবাংলা হলের দোতলায় ওঠার সিঁড়ির মাঝ থেকে আবরারের লাশ উদ্ধার করে চকবাজার থানা পুলিশ। জানা যায়, ওই রাতে হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে আবরারকে পেটান বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কয়েক নেতা।

আবরার ফাহাদ বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের (ইইই) বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। শেরে বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন তিনি। 

মন্তব্য