| প্রচ্ছদ

একাত্মতা প্রকাশ করে অংশ নিল ছাত্রলীগও

আবরারের খুনীদের শাস্তির দাবিতে বগুড়ায় তিন সংগঠনের মানববন্ধন

আকতারুজ্জামান সোহাগ
পঠিত হয়েছে ১৫৭ বার। প্রকাশ: ০৯ অক্টোবর ২০১৯ ।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদের নৃশংস হত্যাকা-ে প্রতিবাদমুখর হয়ে উঠেছে বগুড়ার ছাত্র সমাজ। হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূল শাস্তির দাবিতে বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত প্রগতিশীল ছাত্র জোট, সাধারণ শিক্ষার্থী এবং জাসদ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে শহরের জিরো পয়েন্ট সাতমাথায় পৃথকভাবে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়।
মানববন্ধন শেষে সাধারণ শিক্ষার্থীরা শহরে মিছিল বের করতে চাইলেও পুলিশী তাতে বাধা দেয়। ফলে তারা সেখানে দাঁড়িয়েই শ্লোগান দেন। অবশ্য সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে মানববন্ধন চলকালে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন ছাত্রলীগের বগুড়া জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দ তাতে যোগ দেন এবং আবরার ফাহাদের হত্যাকারীদের বিচারের দাবি জানিয়ে বক্তৃতা করেন।
সকাল ১১টায় শহরের জিরো পয়েন্ট সাতমাথায় প্রথমে প্রগতিশীল ছাত্র জোটের পক্ষ থেকে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়। সংগঠনের নেতা-কর্মীরা ‘আবরার ফাহাদ হত্যার বিচার এবং সন্ত্রাস দখলদারিত্ব নীপিড়ন মুক্ত ক্যাম্পাস চাই’ লেখা ব্যানার নিয়ে আধা ঘন্টার মত মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন। তারা চলে যাওয়া পর ওই একই স্থানে ‘বুয়েটের মেধাবী  শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল’ লেখা ব্যানার নিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরা মানবন্ধনে অংশ নেন। প্রায় একই সময় তাদের পাশে মানববন্ধন কর্মসূচী শুরু করেন জাসদ ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। তাদের ব্যানারে লেখা ছিল ‘বুয়েটের মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন’। বক্তারা আবরার ফাহাদের হত্যাকারীদের বিচার কার্যকরের মধ্যদিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে সন্ত্রসী কর্মকা- বন্ধের দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে প্রসাশনের প্রতি আহ্বান জানান।
প্রগতিশীল ছাত্রাজোটের মানবন্ধন কর্মসূচীতে বক্তৃতা করেন প্রগতিশীল ছাত্রজোট বগুড়া জেলা কমিটির সম্বনয়ক ও ছাত্র ইউনিয়ন বগুড়া জেলা সংসদের সভাপতি নাদিম মাহমুদ, ছাত্র ইউনিয়ন বগুড়া জেলা সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, ছাত্রফ্রন্ট বগুড়া জেলা কমিটির সভাপতি ধনঞ্জয় বর্মণ, ছাত্র ইউনিয়ন বগুড়া জেলা সংসদের সহ-সভাপতি আকতার উজ-জামান টুটুল, দপ্তর সম্পাদক সাগর পারভেজ, শাহ সুলতান কলেজ শাখার সভাপতি সোহানুর রহমান, ছাত্রফ্রন্টের (মার্কসবাদী) বগুড়া জেলা শাখার নেতা সাকিব হোসেন, ছাত্রনেতা মিম, ছাব্বির, আকিব, মেহেদী, বাইজিদ হোসেন, রিতু, সামাদ ও বোরহান। 
জাসদ ছাত্রলীগের মানবন্ধনে বক্তৃতা করেন জাসদ বগুড়া জেলা শাখার সহ-সভাপতি ইকবাল হোসেন রতন, জাসদ কেন্দ্রীয় সদস্য অ্যাডভোকেট এমদাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল লতিফ ববি,অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, জাসদ বগুড়া শহর শাখার সাধারণ সম্পাদক হাসানুল মঞ্জুর দোদুল, সাংগঠনিক সম্পাদক আতিকুজ্জামান তুহিন, জাসদ বগুড়া সদর উপজেলা কমিটির সভাপতি হারুনুর রশিদ হারুন, জাতীয় যুবজোটের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক সামিউল বারী ববি, ছাত্রলীগ বগুড়া জেলা শাখার সভাপতি ওমর ফারুক, সাধারণ সম্পাদক খায়রুল বাশার, সামিউল আলিম ও আতিকুল ইসলাম রুমন। 
সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচীতে বক্তৃতা করেন, রাকিবুল ইসলাম রাকিব, আব্দুল আজিজ ও আবু সুফিয়ান। তাদের মানববন্ধনে একাত্মতা প্রকাশ কওে বক্তৃতাকালে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নাইমুর রাজ্জাক তিতাস বলেন, ‘এরই মধ্যে অভিযুক্তদেরকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের সকলকে গ্রেফতারও করেছে। আমরা নৃশংস এই হত্যাকান্ডে জড়িত সবার বিচার দাবি করছি।’ ইতিপূর্বে নিরাপদ সড়কের দাবিতে গড়ে ওঠা আন্দোলনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের পাশে ছাত্রলীগ দাঁড়িয়েছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমারা জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে এর আগে নিরাপদ সড়ক আন্দোলনে সাধারণ শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছিলাম। এবারও আমরা সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে অপরাধীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করি। তবে সাধারণ শিক্ষার্থীদের প্রতি অনুরোধ থাকবে তাদের মাঝে দেশ বিরোধী কোন শক্তি যেন সুযোগ নিতে না পারে।’

 

মন্তব্য