| প্রচ্ছদ

ক্লাসরুমের বেহাল অবস্থা

শিশুদের মুখে ‘অ আ’ কিন্তু নজর ছাদের দিকে!

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ২৩ বার

বরিশালের বানারীপাড়ায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ৩৮নং বড় চাউলাকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোমলমতি শিশু শিক্ষার্থীদের ক্লাস করানো হচ্ছে।

মঙ্গলবার সকালে ছাদের পলেস্তরা খসে পড়লেও অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেছেন ওই বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী সাধনচন্দ্র শীল।

তিনি জানান, চাউলাকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষে পাঠদানের সময় কোমলমতি শিশু শিক্ষার্থীরা একবার ‘অ আ’ উচ্চারণ করতেই ছাদের দিকে তাকিয়ে থাকতে দেখা যায়- কখন তাদের মাথার ওপর ছাদের পলেস্তরার বালু খসে পড়বে। এ নিয়ে বিদ্যালয় চলাকালে কোমলমতি শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা প্রতিদিন আতঙ্কের মধ্যে রয়েছেন। খবর যুগান্তর অনলাইন।

এ বিষয়ে বড় চাউলাকাঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর আলমসহ একাধিক শিক্ষক জানান, দীর্ঘদিন ধরে তাদের বিদ্যালয়ের লাইব্রেরিসহ তিনটি শ্রেণিকক্ষের ছাদের পলেস্তরার বালু খসে পড়ছে। এ অবস্থায় প্রতিদিন তাদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে শ্রেণিকক্ষে শিশু শিক্ষার্থীদের পাঠদান করাতে হচ্ছে।

তারা জানান, এ বিষয়ে তারা বরিশাল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. আবদুল লতিফ মজুমদার, বানারীপাড়া উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আবুল কালাম আজাদ ও সহকারী শিক্ষা অফিসার মো. আসাদুজ্জামানের কাছে লিখিত এবং মৌখিকভাবে জানিয়েছেন। কিন্তু এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নেননি তারা। ফলে তাদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পাঠদান করাতে হচ্ছে।

প্রধান শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, তার বিদ্যালয়ের ভবন সমস্যা ছাড়াও বর্ষা মৌসুম এলেই বিদ্যালয়ের মাঠে হাঁটু পানি জমে থাকে। প্রতিবছর দ্বিতীয় সাময়িক পরীক্ষা ও ক্লাস চলাকালীন শিক্ষার্থীদের ওই মাঠের পানি পেড়িয়ে বিদ্যালয়ে যাতায়াত করতে হয়।

তিনি এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ আব্দুল্লাহ সাদীদ বলেন, সরেজমিন পরিদর্শন করে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মন্তব্য