| প্রচ্ছদ

সরকারের লুটপাটে দেশটা শ্মশানে পরিণত হয়েছে: ফখরুল

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক
পঠিত হয়েছে ২৩ বার। প্রকাশ: ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ।

গত এক যুগে সরকারের লুটপাটে দেশটা শ্মশানে পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, সরকারের মদদেই সর্বস্তরে দুর্নীতির বিস্তার হয়েছে।

শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে যুবদল আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এ বক্তব্য রাখেন। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এ কর্মসূচি আয়োজন করা হয়।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ধর্মের কল বাতাসে নড়ে। আওয়ামী লীগের সভানেত্রীর সবচেয়ে প্রিয় সন্তান ছাত্রলীগের নেতারা ঘুষ বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত। ফেয়ার শেয়ার আবার এক দুই কোটি টাকা নয়, ৮৬ কোটি টাকা। ঢাকা শহরে ৬০টি ক্যাসিনো চালাচ্ছে যুবলীগ নেতারা বা আওয়ামী লীগের নেতারা। এখন নিজেরা ধরা পড়ে গেছে। এতে প্রমাণিত হয়েছে- এদেশ দুর্নীতিতে পূর্ণ হয়েছে, সরকার সেখানে মদদ দিচ্ছে, আওয়ামী লীগ সেখানে মদদ দিচ্ছে। আজ প্রমাণিত হয়েছে, সরকার রাষ্ট্র পরিচালনায় ব্যর্থ।

তিনি বলেন, আজকে হত্যা করা হচ্ছে, খুন করা হচ্ছে- কোনো বিচার হচ্ছে না। ছোট শিশু সে পর্যন্ত ধর্ষিতা হচ্ছে। কিন্তু সরকারের কোনো মাথা ব্যথা নেই। কোথাও আইনের শাসন নেই, যাকে যখন খুশি তুলে নিয়ে যায়, কোথাও ন্যায়বিচার নেই। এই সরকার যতদিন থাকবে দেশে আইন থাকবে না, বিচার থাকবে না, ন্যায়বিচার থাকবে না, মানুষের জীবনের কোনো নিরাপত্তা থাকবে না।

বিশ্ববিদ্যালয়ে দলীয় লোক নিয়োগের সমালোচনা করে ফখরুল বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর যাদেরকে সবসময় সম্মান করি, মাথার উপরে রাখি তারাও ঘুষ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা তাদের ভাইস চ্যান্সলরের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছে। বিনা পরীক্ষায় সেখানে ভর্তি হচ্ছে।

সংগঠনের সভাপতি সাইফুল আলম নিরবের সভাপতিত্বে ও সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর পরিচালনায় মানববন্ধনে বিএনপির মীর নেওয়াজ আলী, যুব দলের মোরতাজুল করীম বাদরু, নুরুল ইসলাম নয়ন, মামুন হাসান, এসএম জাহাঙ্গীর, রফিকুল ইসলাম মজনু, শফিকুল ইসলাম মিল্টন, গোলাম মাওলা শাহিন ও  রেজাউল করীম পল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মন্তব্য