প্রচ্ছদ

পুণ্ড্রকথা ডেস্ক

পঠিত হয়েছে ১৩৪ বার।
প্রকাশ: ১২ জুন ২০২১ ০৭:২৮ ।

হ্যাকারদের হাতে দুই কোটি ৬০ লাখ আইডির তথ্য!

হ্যাকিংয়ের জন্য এ সময় হ্যাকাররা বিশ্বের বড় বড় ওয়েবসাইটগুলোকে টার্গেট করেছিল। এ তালিকায় আছে আমাজন, ওয়ালমার্ট, ইবে, ফেসবুক, টুইটার, অ্যাপল, ড্রোপবক্স এবং লিঙ্কডইন।

গত দুই বছরে আমাজন,ফেসবুক, অ্যাপল এবং ই-বে’র প্রায় দুই কোটি ৬০ লাখ আইডির তথ্য চুরি হয়েছে। চুরি হওয়া তথ্যের মধ্যে ছিল মেইল, পাসওয়ার্ড ও ব্যক্তিগত তথ্য। হ্যাকারদের এমন কাণ্ডের খবর প্রকাশ করেছে ফক্সনিউজ অনলাইন।
প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৮ থেকে ২০২০ এই দুই বছরে হ্যাকাররা উইন্ডোজভিত্তিক কম্পিউটার ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করে প্রায় ১.২ টেরাবাইট ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করেছে। হ্যাকাররা এ কাজের জন্য ট্রোজান-টাইপের মালওয়্যার ব্যবহার করেছিল। ফলে প্রায় ১০ লাখ ওয়েবসাইটের দুই কোটি ৬০ লাখ ব্যবহারকারীর সব তথ্য চুরি হয়ে গেছে।
হ্যাকিংয়ের জন্য এ সময় হ্যাকাররা বিশ্বের বড় বড় ওয়েবসাইটগুলোকে টার্গেট করেছিল। এ তালিকায় আছে আমাজন, ওয়ালমার্ট, ইবে, ফেসবুক, টুইটার, অ্যাপল, ড্রোপবক্স এবং লিঙ্কডইন।
এদিকে নর্ড-লকার তাদের এক গবেষণা প্রতিবেদনে বলেছে, যে মালওয়্যারের মাধ্যমে এই হ্যাকিং করা হয়েছে তা পাঠানো হয়েছে ইমেইল এবং ‘বেআইনি কিছু সফটওয়্যার’-এর মাধ্যমে। এর মধ্যে আছে অ্যাডোবি-২০১৮, উইন্ডোজ ক্র্যাকিং টুল এবং বেশ কিছু গেমসের ক্র্যাকড সিস্টেম। যেসব ডাটা চুরি করা হয়েছে তার মধ্যে আছে ২০০ কোটি কুকিজ এবং ৬৬ লাখ ফাইল, ১০ লাখ ছবি, ৬ লাখ ৫০ হাজার শব্দ ও পিডিএফ ফাইল।
প্রতিবেদনে আরও বল হয়, চুরি যাওয়া এসব ডাটাবেজের মধ্যে রয়েছে ৩০ লাখ টেক্সট ফাইল, ৯ লাখ ছবি এবং কমপক্ষে ৬ লাখ ওয়ার্ড ফাইল। নর্ড-লকার বলেছে, আরও উদ্বেগের বিষয় হলো, অনেক মানুষ তাদের পাসওয়ার্ড, ব্যক্তিগত তথ্য নোট হিসেবে এবং অন্য স্পর্শকাতর তথ্য জমা রাখতে ব্যবহার করেন নোটপ্যাড। তাও আক্রান্ত হয়ে যাওয়ার ভয় আছে।